Duleep Trophy Final 2022: KKR অধিনায়ককে জবাব বাবা ইন্দ্রজিতের, দ্বিতীয় দিনের শেষে ৪৮রানে এগিয়ে দক্ষিণাঞ্চল

বাবা ইন্দ্রজিতের দুরন্ত সেঞ্চুরিতে দলীপ ট্রফির ফাইনালে দ্বিতীয় দিনের শেষে চালকের আসনে দক্ষিণাঞ্চল। ৪৮ রানে তারা এগিয়ে রয়েছে। এখনও হাতে রয়েছে ৩ উইকেট।

পশ্চিমাঞ্চল এবং দক্ষিণাঞ্চলের মধ্যে ২০২২ দলীপ ট্রফির ফাইনাল ম্যাচটি কোয়েম্বাটুরে খেলা হচ্ছে। যেখানে অজিঙ্কা রাহানের নেতৃত্বাধীন পশ্চিমাঞ্চল টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয়। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রথমে ব্যাট করতে নেমে পশ্চিমাঞ্চল ২৭০ রানে অলআউট হয়ে যায়। এর জবাবে দক্ষিণাঞ্চল বাবা ইন্দ্রজিতের দুরন্ত ব্যাটিংয়ে ভর করে করে ফেলেছে ৭ উইকেটে ৩১৮ রান।

চার নম্বরে ব্যাট করে নিজের আইপিএল অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ারের বিপক্ষে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি করে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেন। প্রসঙ্গত, দক্ষিণাঞ্চলের ইনিংসের শুরুটা খুব খারাপ হয়েছিল। মাত্র ৩০ রানের মধ্যে দলের তারকা ওপেনার মায়াঙ্ক আগরওয়ালের (৯ রান) উইকেট হারায় তারা। একই সঙ্গে ভালো ছন্দে ছিলেন রোহান কুনুম্মলও। তিনি ৩১ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন।

তবে বাবা ইন্দ্রজিৎ অসাধারণ ব্যাটিংয়ের হাত ধরে ঘুরে দাঁড়ায় দক্ষিণাঞ্চল। তিনি শুধু দলের উইকেটেক্রিজ আঁকড়ে লড়াই চালাননি। রানের গতিও বাড়িয়েছেন। বাবা ইন্দ্রজিতের সামনে পশ্চিমাঞ্চলের বোলারদেরও বিবর্ণ হতে দেখিয়েছে। বাবা ইন্দ্রজতের ১২৫ বলে ১১৮ রানের ইনিংসে রয়েছে ১৪টি চার।

২০২২ আইপিএলে বাবা ইন্দ্রজিৎ কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করছিলেন। যাঁর অধিনায়ক ভারতীয় দলের বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান শ্রেয়স আইয়ার। তবে শ্রেয়সের নেতৃত্বে দলের পারফরম্যান্স মোটেও ভালো ছিল না। কেকেআর ২০২২ আইপিএলে পয়েন্ট টেবলের ষষ্ঠ স্থানে থেকে মরশুম শেষ করে।

একই সঙ্গে বাবা ইন্দ্রজিৎকেও এ বারের আইপিএলে মাত্র তিনটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন। তবে তিন ম্যাচে নিজেকে প্রমাণ করতে পারেননি তিনি। ৩ ম্যাচে ৭ গড়ে মাত্র ২১ রান করেন বাবা ইন্দ্রজিৎ। এর পর দল থেকে বাদ পড়েন তিনি।

তবে দলীপ ট্রফির ফাইনালে বাবা ইন্দ্রজিৎ যে রকম পারফরম্যান্স করলেন, তাতে সকলের নজর কেড়েছেন। প্রসঙ্গত, ইন্দ্রজিৎ ছাড়া ৪৮ রান করেছেন মণিশ পাণ্ডে। ৪৩ করেছেন কৃষ্ণাপ্পা গৌতম। দিনের শেষে ৭ উইকেট হারিয়ে ৩১৮ রান করেছে দক্ষিণাঞ্চল। জয়দেব উনাদকাট এবং অতীত শেঠ পশ্চিমাঞ্চলের হয়ে ৩টি করে উইকেট নিয়েছেন। তনুশ কোটিয়ান নিয়েছেন ১ উইকেট।

প্রথম দিনের শেষে পশ্চিমাঞ্চলের ৮ উইকেটে ২৫০ রান ছিল। ৯৬ করে অপরাজিত ছিলেন হেত প্যাটেল। আর উনাদকাট ৩৯ করে ক্রিজে ছিলেন। কিন্তু বৃহস্পতিবার ম্যাচের দ্বিতীয় দিন আর মাত্র ২০ রান যোগ করতে পারে পশ্চিম। হেত প্যাটেল ৯৮ করে আউট হন। আর উনাদকাট ৪৭ রান। এ ছাড়া ৩৭ করেছেন শ্রেয়স আইয়ার। সরফরাজ খান করেছেন ৩৪ রান। ২৫ করেছেন অতীত শেঠ।

দক্ষিণাঞ্চলের হয়ে সাই কিশোর একাই নিয়েছেন ৫ উইকেট। বাসিল থাম্পি এবং চেপুরপল্লী স্টিফেন নিয়েছেন ২টি করে উইকেট। কৃষ্ণাপ্পা গৌতম নিয়েছেন ১ উইকেট।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.