ভৈরব পৈতন্ডী ছিলেন তারাপীঠ মন্দিরের প্রথম পুরোহিত। পালযুগের শেষ দিকে একাদশ শতাব্দীতে জয়দত্ত বণিক উত্তরপ্রদেশ থেকে নৌকায় ধন-দৌলত বোঝাই করে দ্বারকা নদীপথে নিজের গ্রাম বীরভূমের রত্নগড়ে ( গদাধরপুর স্টেশনের চার মাইল দূরে রাতগড়া) ফেরার সময় চন্ডিপুর গ্রামে (তারাপীঠের প্রাচীন নাম) রাত কাটানোর সময় সর্পাঘাতে পুত্রকে হারান। পরদিন মাঝিরা তারাপীঠের দক্ষিণ-পূর্বেরRead More →

রাজস্থানের খেতড়ীর রাজার আমন্ত্রণে একদিন তার রাজসভায় উপস্থিত হলেন স্বামী বিবেকানন্দ। রাজসভায় যাবতীয় আতিথেয়তা শেষ হলো, ভারতের তৎকালীন শ্রেষ্ঠ সন্ন্যাসী স্বামী বিবেকানন্দকেও দেওয়া হলো রাজকীয় সংবর্ধনা ও সম্মাননা। সবশেষ খেতড়ী রাজসভায় বসেছে মজলিশ এবং শেষ অনুষ্ঠান বাঈগান। সব জেনে সন্ন্যাসী বিবেকানন্দের এই আয়োজনে আপত্তি এবং তিনি সভা ছেড়ে বেরুতে চাইলেন।Read More →

পুরুলিয়া জেলার পঞ্চকোট পাহাড়ের কোলে নিতুড়িয়া থানার অন্তর্গত গোবাগ গ্রামের কাছে এই গড়পঞ্চকোট জায়গাটি অবস্থিত। বর্তমানে, যা পর্যটকদের কাছে বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের সঙ্গে প্রাচীন অযাচিত ইতিহাসের এক অদ্ভুত মেলবন্ধন সৃষ্টি করেছে এই স্থানটি।খুঁজে পাওয়া গড়পঞ্চকোট দুর্গের ভগ্ন ইতিহাস-পঞ্চকোট পাহাড়ের পাদদেশে অবস্থিত রহস্যাবৃত ধ্বংসপ্রাপ্ত দুর্গটি গড়পঞ্চকোট দুর্গ নামেRead More →

আকবরের বুকে পা,গলায় ছোরা দিয়ে দাঁড়িয়ে সাহসী রাজপুত রানীর একটি চিত্র রাজপুত যাদুঘরে প্রদর্শিত হয়েছে।এক বীরঙ্গনা ছিলেন কিরন দেবী। তিনি ছিলেন মহারানা প্রতাপ-এর ভাইজি, শক্তি সিংয়ের কন্যা ও পৃথ্বীরাজ রাঠোরের স্ত্রী। সেই সময় ভারতের মোঘল আমলে এক মেলার আয়োজন করা হতো শুধুমাত্র মোঘল রাজাদের লালসা চরিতার্থ করার জন্য এবং সেখানেRead More →

বাংলা সাহিত্যের প্রথম গীতি-কবি হিসেবে সুপরিচিত কবি বিহারীলাল চক্রবর্তী । বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তাকে বাঙলা গীতি কাব্য-ধারার ‘ভোরের পাখি’ বলে আখ্যায়িত করেন । বিহারীলাল চক্রবর্তীর তৃতীয় পুত্র শরৎকুমার চক্রবর্তীর সঙ্গে রবীন্দ্রনাথের জ্যেষ্ঠ কন্যা মাধুরীলতার বিবাহ সম্বন্ধ প্রস্তাব করেছিলেন বিহারীলাল চক্রবর্তীর প্রতিবেশী প্রিয়নাথ সেন মহাশয় । কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উজ্জ্বল ছাত্র শরৎকুমারRead More →

উত্তর-পূর্ব্ব ভারতের বরাক উপত্যকায়(Barak Valley) প্রাণের বাংলা ভাষা আন্দোলন ছিলো আসাম সরকারের ‘অসমীয়া ভাষা’কে রাজ্যের একমাত্র সরকারী দাপ্তরিক ভাষা করার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ, যদিও জনসংখ্যার এক উল্লেখযোগ্য অংশ ছিল বাংলাভাষী । বরাক উপত্যকায় বাংলাভাষী জনসংখ্যা সংখ্যাগরিষ্ঠ, বিশেষতঃ বাঙালি সিলেটি । ১৯৬০ সালের ২১ ও ২২শে এপ্রিল, ‘আসাম প্রদেশ কংগ্রেস’ তাদেরRead More →

একটা সময় ছিল যখন ব্যবসা-বাণিজ্যে বাঙ্গালীর বড় মন ছিল । এক সময়ে মানুষ বলেছিল, বাণিজ্যে বসতে লক্ষ্মীঃ। তখন মানুষ লক্ষ্মীর যে – পরিচয় পেয়েছিল সে তো কেবল ঐশ্বর্যে নয়, তাঁর সৌন্দর্যে। তার কারণ, বাণিজ্যের সঙ্গে তখন মনুষ্যত্বের বিচ্ছেদ ঘটে নি। তাঁতের সঙ্গে তাঁতির, কামারের হাতুড়ির সঙ্গে কামারের হাতের, কারিগরের সঙ্গে তারRead More →

জোড়াসাঁকোতে প্রথম বিধবা বিবাহ হয় রথীন্দ্রনাথ এবং প্রতিমার। কবিগুরু এরপরে লাবণ্যলেখার বিবাহ দিয়েছিলেন প্রিয় শিষ্য অজিত কুমার চক্রবর্তী সঙ্গে । গগনেন্দ্রনাথ ঠাকুরের ইচ্ছে ছিল তাঁর নিজের পুত্রবধূ অর্থাৎ গেহেন্দ্রের বিধবা স্ত্রী মৃণালিনীদেবীরও বিবাহ দেওয়া। কিন্তু এব্যাপারে মৃণালিনীদেবীর প্রবল আপত্তি থাকায় সে কার্য সম্পন্ন করা সম্ভব হয়নি। তবে এক্ষেত্রে উদারতা ওRead More →

পসারিনী, ওগো পসারিনী, কেটেছে সকালবেলা হাটে হাটে লয়ে বিকিকিনি। হাট , এখানে ভ্রমণ করার মধ্যে একটা বেশ মজা কাজ করে। তবে, সেটা উপভোগ করা যায় তখনি যখন হাট থাকে ক্রেতা বিক্রেতায় পরিপূর্ণ , সেখানে যখন লক্ষ্মীর আনাগোনা থাকে অহরহ। এটাই তো হাটের সজীবতা। গ্রামের হাটগুলোতে এমন প্রাণোচ্ছল সজীব দৃশ্য সর্বদাRead More →

১)জন্ম ও শিক্ষা:–প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার চট্টগ্রামের ধলঘাট গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা ছিলেন মিউনিসিপ্যাল অফিসের হেড কেরানী জগদ্বন্ধু ওয়াদ্দেদার এবং মাতা প্রতিভাদেবী। তাঁদের ছয় সন্তানঃ মধুসূদন, প্রীতিলতা, কনকলতা, শান্তিলতা, আশালতা ও সন্তোষ। তাঁদের পরিবারের আদি পদবী ছিল দাশগুপ্ত। পরিবারের কোন এক পূর্বপুরুষ নবাবী আমলে “ওয়াহেদেদার” উপাধি পেয়েছিলেন, এই ওয়াহেদেদার থেকে ওয়াদ্দেদারRead More →