” ‘মহেশ’ নামে আমার লেখা একটি ছোট গল্প আছে, সেটি সাহিত্যপ্রিয় বহু লোকেরই প্রশংসা পেয়েছিল। একদিন শুনতে পেলাম গল্পটি Matric-এর পাঠ্য-পুস্তকে স্থান পেয়েছে। আবার একদিন কানে এল সেটি নাকি স্থানভ্রষ্ট হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে নিজের কোন যোগ নেই, ভাবলাম এমনিই হয়ত নিয়ম। কিছুদিন থাকে, আবার যায়। কিন্তু বহুদিন পরে এক সাহিত্যিকRead More →

বেলঘরিয়া স্টুডেন্টস হোমে ঠাকুরকে বছরে কয়েকবার মাত্র অন্নভোগ দেওয়া হত। শ্রীশ্রী সরস্বতী পূজা, রবীন্দ্রজয়ন্তী (বৈশাখ মাসের এইদিন ছাত্রদের কলেজ ছুটি থাকত বলে), বিদ্যার্থী ব্রত হোমের দিন, শ্রীশ্রী দুর্গা পূজার মহাষ্টমী তিথিতে শ্রীশ্রী কালী পূজার রাত্রে আর ২৪শে ডিসেম্বর রাজা মহারাজের উৎসবের দিন। তখন তো গর্ভমন্দির বলে আলাদা করে কিছু ছিলRead More →

বেলঘরিয়া স্টুডেন্টস হোমের তিনটি বিভাগ ছিল। পলিটেকনিক কলেজ (শিল্পপীঠ), কমিউনিটি পলিটেকনিক আর রেল ব্রিজের ওপারে স্বামী বিজ্ঞানানন্দজীর বাড়ী। সবগুলোর কাজ পূজনীয় স্বামী অমলানন্দজী অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে পরিচালনা করতেন। তাঁর ভগ্নস্বাস্থ্য, রাজনৈতিক দলের দেওয়া পীড়ন সব উপেক্ষা করে সবকিছু অত্যন্ত সুচারু ভাবে পরিচালনা করতেন। শিল্পপীঠকে তিনি নিজের আত্মজ-র মতো ভালবাসতেন। কলেজেরRead More →

“বেরোবে তো? উঠে তৈরি হও না। এখন আবার সিগারেট ধরালে কেন?” ড্রেসিং টেবিলের সামনে দাঁড়িয়ে চুল আঁচড়তে আঁচড়াতে বলল সুমনা। উঠে আসা চুল পুঁটলি পাকিয়ে ওয়েস্টবিনে ফেলতে গিয়েও রেখে দিল ড্রয়ারে।“পাগোল, এই ভিড়ের মধ্যে কেউ হুজুক করে?”“অনেক লোক হুজুক করে বলেই তো ভিড় হয়? আর হুজুক বলছ কেন? ভক্তি। নাওRead More →

কয়েক বছর আগের কথা।ক্লাস সেভেনের বার্ষিক পরীক্ষার খাতা দেখছিলাম।খাতা দেখা প্রায় শেষ হয়েই গেছে।আর কয়েকটি খাতা দেখলেই খাতা দেখা শেষ হয়ে যাবে।হঠাৎ একটি খাতা দেখতে গিয়ে আমার চোখটা আটকে যায়।প্রথম পাতায় এসে নামটা আরো একবার দেখলাম।ছেলেটির নাম উত্তম। উত্তমের খাতাটা দেখতে গিয়ে আমাকে বেশ ভাবিয়ে ছিল।পরীক্ষায় লিখতে দেওয়া হয়েছিল “তোমারRead More →

সময় ও মন আমরা দুঃখী হলে, মন ভেঙে যায় ( সঙ্কুচিত হয়)৷ সময়টা তখন দীর্ঘ লাগে। যখন আমরা খুশি হই, মন প্রসন্ন (প্রসস্ত হয়) হয়, সময়টা তখন কিভাবে চলে যায়, বুঝতেই পারি না ৷ মনের সমতা বজায় থাকে, সময়ের উর্ধ্বে চলে গেলে ৷ মন যখন বিষণ্ন ও চেতনাহীন থাকে, তখনRead More →

মারুধু পান্ডিয়ারা (পেরিয়া মারুধু এবং চিন্না মারুধু) 18 তম শতাব্দীর শেষদিকে ভারতের তামিলনাড়ুর শিবাগানাইয়ের সর্দার ছিলেন। তাঁরা ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য পরিচিত ছিলেন। শেষ পর্যন্ত তাঁদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছিল। পেরিয়া এবং চিন্না মারুধু, মুকিয়াহ পলানিয়াপ্পান সার্ভাইয়ের পুত্র ছিলেন নরিকুডির নিকটে মুকুলামের বাসিন্দা, যা অরুপুকোটাই থেকে 18 মাইলRead More →

ছোট্ট এ ঘাসফুলের নামের অন্ত নেই। চারটি প্রজাতি আছে বলে জেনেছি। আমি নিজেও তিন প্রজাতির ছবি ধারণ করেছি। কোনটা কোন প্রজাতির তা সনাক্ত করতে পারিনি। সত্যিকার অর্থে প্রজাতি নিয়ে মাথা ঘামানোর প্রয়োজন বোধ করিনি। সনাক্তকরণ বিশেষজ্ঞগণের ব্যাপার। আমার অধিকাংশ বন্ধুই আমার দলে। তারা ফুল দেখে খুশী হন, কেউ একটা লাইকRead More →

পুরুলিয়ার আঞ্চলিক ভাষায় লেখা একটি খুব সুন্দর কবিতা পাখিপাহাড়ে কইলকাতার বাবুকে দন্ডবত আইজ্ঞা । কোথা লে আসছেন? কইলকাতা?পাখি পাহাড় দ্যখার শখে চ্যলে আলেন হামদের মাঠা?হাতে উটা ফুকনলের পারা কি বঠে? ভিডিও ক্যমরাফটোক তুইলবেন? খপর ছাইপবেন? ক্যমন আছি হামরা?হামি শিরি ছিদাম মাঝি। ঘর বঠে মুনিবেড়া।বাসি খাঁয়ে বাঁচি আইজ্ঞা, যেমন বাঁচে গরু-ভেড়া।হুইদিকেRead More →

এক টুকরো ঘটনা…..এক চোর চুরি করে পালাতে গিয়ে ধরা পড়ে যায় এক যুবকের কাছে। রাস্তাতে চোরকে জড়িয়ে ধরে চিৎকার করে বলতে থাকে, “চোর ! চোর ! চোর !” বলে। চোর তাকে বারবার বলতে থাকে ছেড়ে দেবার জন্য। চোর হুংকার দিয়ে বলে আমায় না ছাড়লে তারও পরিণতি ভালো হবে না। বারবারRead More →