রাজস্থানের উদয়পুরে ২৭ বছরের কানহাইয়া লালের নৃশংস হত্যাকান্ড ভারতের আপামর মানুষদের স্তম্ভিত করে দিলেও,ভারতের তথাকথিত “ধর্মনিরপেক্ষী”-গণ আশ্চর্যজনক ভাবে নিশ্চুপ!বিচ্ছিন্ন ভাবে দুই-এক জন ঘটনার নিন্দা করলেও তা যেন অতি ভয়ে ভয়ে ! অথচ “এঁরাই” আবার বিভিন্ন সময়ে,বিভিন্ন বিষয়কে কেন্দ্র করে জেহাদিদের তান্ডবে উল্লসিত হয়।ভারতে থেকে,ভারতে আয় করে,ভারতেরই খেয়ে,ভারতেরই ধ্বংস সাধনে নিবেদিতপ্রাণRead More →

খড়দহ-রহড়া নাট্যচর্চার অন্যতম পীঠস্থান বলে আমরা জানি। এটাও জানি রহড়া রামকৃষ্ণ মিশনের প্রথম কর্মাধ্যক্ষ স্বামী পুণ্যানন্দ বিগত শতাব্দীর চারের দশক থেকে বালকাশ্রমে নাট্যচর্চা শুরু করেছিলেন, যা রহড়া-খড়দার নাট্যচর্চাকে রসসিক্ত করেছিল। পৌরাণিক ও ঐতিহাসিক নাট্যচর্চার প্রতি পুণ্যানন্দজীর বিশেষ অনুরাগ ছিল। কিন্তু এটা অনেকের অজানা যে, এসবের পশ্চাতে খড়দহের যে মানুষটির প্রভাবRead More →

কোভিডের সময় যখন ভারতবর্ষ অতিমারীর বিরুদ্ধে লড়াই করছে‚ সেই সময়ের পত্র-পত্রিকায় রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের বিষয়টিও নিশ্চয়ই আপনারা খেয়াল করেছেন? বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কারণ এর সংগে দেশের নিরাপত্তা জড়িয়ে আছে। মায়ানমার থেকে বিতাড়িত রোহিঙ্গাদের একটি অংশ ভারতে বেআইনি অনুপ্রবেশ করে সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছিল। সম্প্রতি কাশ্মীরে কয়েকজন রোহিঙ্গা ধরা পড়ায় সেই সমস্যাRead More →

৩০ শে জুন হুল দিবস, সাঁওতাল বিদ্রোহের স্মরণ দিবস। ১৮৫৫ সালে ইংরেজ অত্যাচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছিল সরল সাধাসিধে অথচ প্রাণশক্তির প্রাচুর্যে বলীয়ান এক ভারতীয় বনবাসী গোষ্ঠী; তারা লড়াই করেছিল গোলা-বন্দুকের বিরুদ্ধে, আগ্রাসী প্রবল এক শক্তির বিরুদ্ধে। যদি ভারতমাতার এই লড়াকু মানুষদের কাছে পর্যাপ্ত আধুনিক সমরাস্ত্র থাকতো, তাদের পূর্ব পরিকল্পনা থাকতো,Read More →

শেষ থেকেই শুরু করা যাক। আর্কাইভ ঘেঁটে ২৭ মে ১৯২৪, আশুতোষ মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যুর দু’দিন পরের তারিখের আনন্দবাজার পত্রিকার হেডলাইনগুলো দেখছি: ‘বাঙ্গলার নরশার্দ্দূল আশুতোষের মহাপ্রয়াণ’। ‘হাওড়া ষ্টেশন, সহরের রাস্তাঘাট লোকে লোকাকীর্ণ’। ‘সিনেট-গৃহে মর্মস্পর্শী দৃশ্য’। ‘সহরের আফিস-আদালত, দোকানপাট বন্ধ’। ‘শবানুগমে জনসমুদ্র’। মামলার কাজে আশুতোষ পটনা-কলকাতা করছিলেন, সেই পটনাতেই হঠাৎ অসুস্থ এবং ২৫Read More →

সাহিত্যানুরাগী পাঠকের মনে থাকবে— প্রসন্ন গোয়ালিনির গরু চুরির মকদ্দমায় উকিল কমলাকান্তের পেশা ‘ভিক্ষা’ লেখার প্রস্তাব দেওয়ায় সে প্রতিবাদ করে সগর্বে বলেছিল, “লিখুন, পেশা ব্রাহ্মণ ভোজনের নিমন্ত্রণ-গ্রহণ।” কর্মবিমুখ পরান্নজীবী ব্রাহ্মণসমাজের প্রতি এই তীব্র শ্লেষ নিক্ষেপকালে বঙ্কিমচন্দ্র হয়তো স্বপ্নেও ভাবেননি, দেড়শো বছরের মধ্যে একটা সমাজ অনুপার্জিত প্রাপ্তির জন্যে কত মরিয়া, অলজ্জ হয়েRead More →

একে বন্যা পরিস্থিতিতে জেরবার অবস্থা অসমের, তার মধ্যে দুর্ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনা ঘটল। প্লাবন পরিস্থিতিতে মাথা গোঁজার ঠাঁই বলতে এখন ত্রাণশিবির। সেখানে আচমকা ধেয়ে এসে সজোরে ধাক্কা মারল একটি গাড়ি। যার জেরে মৃত্যু হল এক জনের। আহত হয়েছেন আরও ছয় জন। অসমের মরিগাঁও জেলায় এই ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ সূত্রে খবর, ৩৭নংRead More →

ছাত্রাবস্থায় চট্টগ্রাম অস্ত্রাগার দখলের কার্যক্রমে তিনি অংশগ্রহণ করেন। সামরিক বাহিনীর সর্বাধিনায়ক সূর্যসেনের নেতৃত্বে জাতীয়তাবাদী আইরিশ বিপ্লবীদের ‘ইস্টার বিদ্রোহের’ স্মৃতি বিজড়িত ‘গুডফ্রাইডের’ দিনে, ১৯৩০ সালের ১৮ এপ্রিল রাত দশটায়, চট্টগ্রামে বিপ্লবীদের অত্যন্ত সুপরিকল্পিত অভিযান শুরু করার বিষয়ে বিপ্লবীদের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। পূর্ব-পরিকল্পনা অনুসারে প্রয়োজনীয় অস্ত্র সংগ্রহের উদ্দেশ্যে ১৯৩০ সালের ১৮Read More →

যতীন্দ্রনাথ সেনগুপ্ত (২৬ শে জুন, ১৮৮৭ — ১৭ ই সেপ্টেম্বর, ১৯৫৪)-র ‘হাট’ কবিতাটি (‘মরীচিকা’ কাব্যগ্রন্থের অন্তর্ভুক্ত, ১৯২৩ খ্রীস্টাব্দ/১৩৩০ বঙ্গাব্দ) ছাত্রজীবনে আমাকে দারুণ ভাবে প্রভাবিত করেছিল। সেই গ্রামের হাট, প্রভাতে যেখানে ঝাঁট পড়ে না, সন্ধ্যায় যেখানে জ্বলেনা প্রদীপ। সেই দশবারোখানি গাঁয়ের মাঝে একটি হাট — পড়ে থাকে আঁধারে, তার দোচালায় মুদেRead More →

বাংলা গদ্য ও উপন্যাসের বিকাশে তাঁর অসীম অবদানের জন্যে তিনি বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসে অমরত্ব লাভ করেছেন। তাঁকে সাধারণত প্রথম আধুনিক বাংলা ঔপন্যাসিক হিসেবে গণ্য করা হয়। তবে গীতার ব্যাখ্যাদাতা হিসাবে, সাহিত্য সমালোচক হিসাবেও তিনি বিশেষ খ্যাতিমান। তিনি বাংলা ভাষার আদি সাহিত্যপত্র বঙ্গদর্শনের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ছিলেন। তিনি ছদ্মনাম হিসেবে কমলাকান্ত নামটিRead More →