মাত্র ঊনিশ বছরের জীবন দীনেশচন্দ্র গুপ্ত (৬ই ডিসেম্বর ১৯১১ – ৭ই জুলাই ১৯৩১)-র। আর এই বয়সেই তিনি হয়ে উঠলেন মৃত্যুঞ্জয়ী। কারণ মুক্তি-মন্দিরের সোপনতলে তিনি আত্মবলিদান করেছেন ভারতবর্ষের পরাধীনতার শেকল ভাঙ্গবেন বলে। বিনয়-বাদল-দীনেশ এই ত্রয়ীর অন্যতম দীনেশচন্দ্র গুপ্তের আজ জন্মবার্ষিকী। আজ হয়তো অনেক মানুষই জানেন না, কিন্তু এই স্বর্গগত মানুষেরা এখনোRead More →

গত ৫ ডিসেম্বর ২০২২ সোমবার মিনার্ভা থিয়েটারে অনুষ্ঠিত হল সুপ্রতীম সরকারের কাহিনী অবলম্বনে সংস্কার ভারতী রেপার্টরী নাটক ‘ নাম সুশীল ’ । নাট্যরূপ -তপন গাঙ্গুলী , নির্দেশনা- সুপ্রীতি ভদ্র । স্বাধীনতা সংগ্রামের প্রেক্ষাপটে রচিত এই নাটকে এমন একজন দেশপ্রেমিক স্বাধীনতা সংগ্রামীর কথা ব্যাক্ত হয়েছে যাঁর কথা এতদিন আমাদের তেমন ভাবেRead More →

চর্যাপদের সঙ্গে তাঁর নাম জড়িয়ে আছে। তিনি মহামহোপাধ্যায় হরপ্রসাদ শাস্ত্রী। ১৯০৭ সাল। সংস্কৃত পুঁথির চর্চা করছেন। সংস্কৃতের পাশাপাশি বাংলাভাষার পুঁথিও তাঁর মনযোগ সমানভাবে কেড়ে নিল। তারই অনুষঙ্গে ধূসর পুঁথি-পাণ্ডুলিপির সন্ধানে তিনি নেপালে গেলেন। অনুসন্ধানরত হরপ্রসাদের নেপাল ভ্রমণ চলতেই থাকলো। হয়তো ভারতবর্ষে ইসলামিক শাসনে বহু পুঁথি ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়েছে, যদি নেপালে হিন্দুRead More →

আজ বাঙালি ঐতিহাসিক রমেশচন্দ্র মজুমদার (০৪/১২/১৮৮৮) -এর জন্মদিন। বাঙালির ইতিহাস ভাবনার অভাব নিয়ে একসময় বঙ্কিমচন্দ্রকে দুঃখ করতে দেখেছি, ‘বাঙালির ইতিহাস নাই।’ সাহেবরা পাখি মারতে গেলেও তার ইতিহাস লিখে রাখে, কিন্তু বাঙালির ইতিহাস নেই। বাঙালির সত্যিকারের ইতিহাস যখন লিখতে শুরু করলেন ড. রমেশচন্দ্র মজুমদার, তখনই তাঁকে ‘ক্লোজ’ করার প্রক্রিয়া শুরু হল।Read More →

দিকে উঠে আসছে। ছাদ ক্রমশ গরম হয়ে উঠছে। আর দাঁড়িয়ে থাকতে পারছিলাম না। এদিকে শিশুদের আকুল ক্রন্দন আমাদের দিশেহারা করে দিচ্ছিল। তখন আমি ও বাড়ির কয়েকজন বধূ এবং মেয়েরা একত্রে হাত জোড় করে উঠে দাঁড়ালাম। এবং বলতে লাগলামঃ “এই শিশুগুলিকে রক্ষা কর। তোমাদেরও ছেলেমেয়ে আছে বাড়িতে। তাদের মুখের দিকে তাকিয়েRead More →

পরবর্তীকালে তিনিই হলেন ভারতের প্রথম রাষ্ট্রপতি (১৯৫২-৬২)। একাদিক্রমে দুইবার নির্বাচিত রাষ্ট্রপতি ড. রাজেন্দ্র প্রসাদ [৩ রা ডিসেম্বর, ১৮৮৪ — ২৮ শে ফেব্রুয়ারী, ১৯৬৩; বি.এসসি (প্রথম শ্রেণি, কলকাতা), এম.এ (অর্থনীতিতে স্বর্ণপদক, কলকাতা), এলএলবি (স্বর্ণপদক, কলকাতা), পিএইচডি (এলাহাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়)] -এর কলেজজীবন শুরু কলকাতায়। ১৯০২ সালে তিনি ভর্তি হলেন প্রেসিডেন্সি কলেজে। সেই বৎসরইRead More →

শ্রীঅরবিন্দ তাঁর বঙ্গপর্বের সময় গীতা বিষয়ক একটি প্রবন্ধ রচনা করেন। তিনি তখন সাপ্তাহিক ‘ধর্ম’ পত্রিকা সম্পাদনা করছেন। ১৯০৯ সাল থেকে ১৯১০ সালের মধ্যে প্রকাশ করলেন ‘গীতার ভূমিকা’ সংক্রান্ত ধারাবাহিক কিছু লেখা। তা পুস্তক আকারে প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল শ্রীঅরবিন্দ আশ্রম ট্রাস্টের তরফে ১৯২০ সালে। তখন তিনি পণ্ডিচেরীতে রয়েছেন। বইটিতে কী আলোচনাRead More →

ভারতীয় ডাকবিভাগ ১৯৫৮ সালের ৩০ শে নভেম্বর ১৫ নয়া পয়সা মূল্যের নীল-সাদা বর্ণে একটি ডাকটিকিট ছাপায়, সেখানে তাঁর জীবনকাল উল্লেখ আছে (৩০-১১-১৮৫৮ — ২৩-১১-১৯৩৭)। টিকিট প্রকাশের সঙ্গে প্রথম দিনের আবরণী বা খাম ছাপানো হয়। সেখানে তাঁর আবিষ্কৃত মাইক্রোওয়েভ অ্যাপারেটাসের ছবি আছে। ভারতীয় ডাকবিভাগ তাঁর স্মরণে একটি বিশেষ আবরণী বা স্পেশালRead More →

দ্য গার্ডিয়ান তার সাম্প্রতিক সম্পাদকীয়তে লেস্টার হিংসার জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী হিন্দুদের দায়ী করেছে এবং শহরের হিন্দুদের দ্বারা মসজিদে হামলা হয়েছে এমন ভুয়ো খবরও প্রচার করেছে। মার্কিন মুলুকে দ্য গার্ডিয়ান সংবাদপত্রকে তার দেশের বেশিরভাগ নাগরিক অতি-বাম এক মিডিয়া হিসাবে বিবেচনা করেন। The Guardian in its recent editorial blamed Hindus livingRead More →