CNN News 18 টিভি চ্যানেলের সদ্য একটি বিরাট সমীক্ষায় জানা গিয়েছে: ভারতের মাত্র ২% লোক চীনকে ভারতের বন্ধু বলে মনে করে। ৮০% ভারতীয় চীন কে ভারতের শত্রু বলে মনে করে।১৮% ভারতীয় মনে করে চীন ভারতের বন্ধুও নয়, শত্রুও নয়। 

https://sw-ke.facebook.com/cnnnews18/videos/india-china-standoff-bharat-stop-onbeing-nirbhar–china-the-right-stand-cnn-news/2514542308798239/


৯১% লোক বলেছে তারা চাইনিজ প্রোডাক্ট ও সার্ভিস বয়কট করবে। ৮৮% লোক বলেছে ভারতে চীনকে টেলিকম ইনফ্রাস্ট্রাকচার তৈরী করতে দেওয়া উচিত নয়। সবথেকে মজার কথা, ভারতে মাত্র ৮% লোক চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং কে পছন্দ করে, যেখানে ৭২% লোক পছন্দ করে আমেরিকার রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প কে। 

সমীক্ষার কয়েকটি চার্ট আমি নিচে তুলে ধরলাম।

চীন এবং ভারত- দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা বাড়ছে। লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় মুখোমুখি দুই দেশের সেনা। এই অবস্থায় চীন সম্পর্কে ভারতের মানুষের কী ধারণা, তা জানতে চেয়ে নিউজ এইটিন নেটওয়ার্কের পক্ষ থেকে ইংরেজি, হিন্দিসহ অন্যান্য আঞ্চলিক ভাষাতেও একটি পোল তৈরি করা হয়েছিল।

 চারদিন ধরে ১৬টি ওয়েবসাইট এবং ১৩টি ভাষায় এই জনমত নেয়া হয়। সেই ফল এখন সবার সামনে। নিউজ এইটিন, মানিকন্ট্রোল, ফার্স্টপোস্ট, সিএনবিসি-টিভিএইটিন এর ওয়েবসাইট এবং সব সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডলে চারদিন ধরে সমীক্ষা চালিয়ে যা ফলাফল এসেছে।

BOYCOTT CHINA


তাতে দেখা যাচ্ছে, ভারতের অধিকাংশ মানুষই চীন বিরোধী মতামত প্রকাশ করেছেন। ট্রাম্প (৯২ শতাংশ) এবং জিনপিং (৮ শতাংশ)-এর মধ্যে একজনকে বাছতে বললে এখনও ট্রাম্পের দিকেই সমর্থন বেশি ভারতীয়দের। মালেয়ালি, উর্দু, মারাঠি এবং ওড়িয়া ভাষার মানুষদের মধ্যে আবার ট্রাম্পের সমর্থন আরও বেশি প্রায় ৯৮ শতাংশ।


বিশ্বের শক্তি হিসেবে চীনকে নিয়ে ভারতের স্টান্স কী হওয়া উচিত? সেই প্রশ্নের উত্তরে অধিকাংশ ভারতীয়ই মনে করেন, চীনের বিরুদ্ধেই থাকা ভালো ভারতের। আবার ৫১ শতাংশ তামিল ও ৫২ শতাংশ পাঞ্জাবি মনে করেন ভারতের কোনও পক্ষকেই সমর্থন করা উচিত নয়। চীন বিশ্বাস করার মতো দেশ নয়। সে ব্যাপারে ৯৪ শতাংশ ভারতীয় একমত। ৯১ শতাংশ মানুষ মনে করেন ভারতীয়দের চীনা পণ্য এবং অন্যান্য চীনা সার্ভিসগুলো যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বর্জন করা উচিত।


এ ব্যাপারে সবার চেয়ে এগিয়ে মারাঠিরা (৯৭ শতাংশ)। পিছিয়ে নেই পাঞ্জাবিরাও। ৭৬ শতাংশ পাঞ্জাবিরা মনে করেন চীনের জিনিস আর না ব্যবহার করাই ভালো। মাত্র ৪ শতাংশ মানুষই এখনও চীনের জিনিস ব্যবহার করার পক্ষে। কারণ অধিকাংশ জিনিসই বেশ সস্তায় পাওয়া যায়।


প্রায় পুরো দেশ একটা বিষয়ে একমত। সেটা হলো পাকিস্তানের অনেক বড় সমর্থক চীন। তাই ওই দেশ কখনও ভারতের বন্ধু দেশ হতে পারে না। এর পাশাপাশি করোনা নিয়ে চীন সত্য গোপন করেছে। এ বিষয়ও অধিকাংশ ভারতবাসীই একমত। ভারতের ৬১ শতাংশ মানুষ চীনকে শত্রু দেশ হিসেবেই মনে করেন বলে জনমত সমীক্ষার রিপোর্টে উঠে এসেছে এই তথ্য…

তথ্যসূত্র কৃতজ্ঞতা : তপন ঘোষ , নিউস 18

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.