শ্রীঅরবিন্দ তাঁর মা বইটিতে শ্ৰীমায়ের চারটি বিশেষ মাতৃরূপের বর্ণনা করেছেন। এর বাইরে রয়েছে প্রাত্যহিক বা দৈনন্দিনের মায়ের বিশেষ বিশেষ রূপ। যারা মাকে কাছ থেকে দেখেছেন তারা তাঁর সেই দৈনন্দিনের মহিমান্বিত রূপ দর্শন করেছেন। জগৎ আগেও বাস্তবের এমন দেবীরূপ দেখেনি, ভবিষ্যতেও সম্ভবত এ জগৎ আর তা প্রত্যক্ষ করবে না। যে জননীRead More →

ভগিনী নিবেদিতা, ‘দ্য মাস্টার অ্যাজ আই স হিম’ গ্রন্থে শ্রীমা সম্পর্কে তাঁর অভিজ্ঞতা তুলে ধরেছেন। তারই কিছু অংশ উদ্ধৃত করা হলাে : “অদ্ভুত এক পরিবারের অন্তর্ভুক্ত হলাম। আমাদের ক্ষুদ্র গােষ্ঠীর যিনি কর্ত্রী—তাঁর বিষয়ে কিছু বলতে যাওয়া ধৃষ্টতা। তাঁর জীবনের ইতিহাস সর্ববিদিত। পাঁচ বছর বয়সে পরিণয়, আঠারাে বছর বয়স পর্যন্ত তাঁকেRead More →

সুখ কখনও হয় না নিরন্তর দেবতাদেরও। তাঁদেরও জীবনে বারেবারেই নেমে আসে অ-সুখের কালােরাত্রি। স্বর্গের অধিবাসী হয়েও সেখানকার সিংহাসন হাতছাড়া হয় সুরেন্দ্রর। দেবরাজ্য দখল করে অসুররা। আর তাদেরই ভয়ে স্বর্গ ছেড়ে পালান দেবতারা। দীন-দুঃখীর মতােই ঘুরে বেড়ান পথেঘাটে। কখনও বা লুকিয়ে পড়েন পাহাড়ে কন্দরে। সেবারও হলাে তাই। স্বর্গহারা দেবতারা তখন সাধারণRead More →

‘এক সদ বিপ্রাঃ বহুধা বদন্তি’। সত্য একটাই কিন্তু জ্ঞানী ব্যক্তিরা তাকে বিভিন্নভাবে প্রকাশ করেন। ভারতীয় জ্ঞান ভাণ্ডার, প্রাচীন সাহিত্য, এই বিষয়টিকেই প্রতিধ্বনিত করে। ঈশ্বর থেকেই এই জগৎ সৃষ্টি হয়েছে, ঈশ্বরের মধ্যেই এই জগৎ রয়েছে, ঈশ্বরের মধ্যেই এই জগৎ বিলীন হয়ে যায়— এটিই চিরন্তন সত্য। এই বিশ্বব্রহ্মাণ্ড একটি ছন্দ তথা নিয়মেRead More →