সপ্তাহান্তের প্রচারে সরগরম বাংলার উত্তর থেকে দক্ষিণ৷ প্রার্থী থেকে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাদের কথাতে ভোটের উত্তাপের মাত্রা ক্রমশ উর্ধ্বমুখী৷ কেউ কাউকে জমি ছাড়তে নারাজ৷
ছুটির দিনে প্রচারে ব্যস্ত থাকলেন বিজেপি নেত্রী ও রাজ্যসভার সাংসদ রূপা গঙ্গোপাধ্যায়৷ আক্রমণ শানালেন রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলকে৷ উন্নয় নয়, বাংলাজুড়ে মদের দোকান খুলে, মানুষকে বোকা বানিয়ে কেন্দ্রের দেনা মেটানোর চেষ্টা করছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার৷ অভিযোগ রূপার৷

পদ্ম শিবিরে যোগ দেওয়ার পর থেকেই জোড়াফুলের বিরুদ্ধে সরব গেরুয়া দলের এই নেত্রী৷ জলপাইগুড়িতে ভোট ১৮ই এপ্রিল৷ তার আগে উত্তরের এই রাজ্যে বিজেপি প্রার্থীর হয়ে রূপা গঙ্গোপাধ্যায় প্রচার করছেন চিকিৎসক জয়ন্ত রায়ের সমর্থনে৷ হুড খোলা জিপে শহর পরিক্রমা করেন তিনি৷

সেখানেই বিজেপি নেত্রী বলেন, ‘‘রাজ্যের কোষাগার ভরাতে মদের দোকান খোলার অনুমতি দিচ্ছে রাজ্য সরকার৷ জল খাইয়েই বোটের বৈতরণী পাড় করার চেষ্টা করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তবে মানুষ এইসব মেনে নেবেন না৷ তারা পরিবর্তন চান৷ ফলে এবার বিজেপি প্রার্থীই জিতবেন৷’’

এদিন স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিমায় তৃণমূল প্রার্থীদের কার্যকলাপ অভিনয় করেও দেখান বিজেপি নেত্রী রূপা গঙ্গোপাধ্যায়৷ তবে তাঁর এইসব অভিযোগ উড়িয়ে দেন লপাইগুড়ি তৃনমুল প্রার্থী বিজয় চন্দ্র বর্মন৷ প্রচারের ফাঁকে বিরোধীদের কখার প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, ‘‘প্রচারে ও কথা বলার সময় রূপা গঙ্গোপাধ্যায় অসুস্থ ছিলেন৷ এটা বাংলার সংস্কৃতি নয়৷ তিনি যেমন, তাঁর ব্যাখ্যাও তেমন৷’’

জোড়াফুলের উন্নয়নে আস্থা৷ নাকি, পদ্ম শিবিরের কথায় মজে মানুষ তার উত্তর সময়ের গর্ভে লুকিয়ে৷

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.