গতকাল বীরভূমে এক বিশাল জনসভা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর সেই জনসভায় আসা জনতার ভিড় প্রমাণ করে দিয়েছিল যে, এবার বীরভূমে অনুব্রতর দুর্গের ভীত নাড়িয়ে ছাড়বে বিজেপি। গতকাল বিজেপির সভায় আসা জনতার বাড়ি বাড়ি গিয়ে শাসিয়ে এসেছে শাসকদল। এমনকি বিজেপিকে সমর্থন করায় মহিলার মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে ভয়ও দেখানো হয়েছে তৃণমূলের গুণ্ডাদের তরফ থেকে।

আর তাঁর থেকেও বড় নির্মমতার কাজ করেছে অনুব্রতর গুণ্ডারা। বিজেপিকে সমর্থন করার জন্য আর বিজেপির সভায় যোগ দেওয়ার জন্য বিজেপি সমর্থকেরা পোলট্রি ফার্ম জ্বালিয়ে ছাই করে দিয়েছে তৃণমূলের গুণ্ডারা! কিন্তু তাতেও দমানো যাবেনা বিজেপিকে, সেটাই আজ আবার প্রমাণিত হল।

আজ মোহম্মদ বাজার ব্লক এলাকায় ভুতুরা ও চরিচা গ্রাম পঞ্চায়েতের হাজার তিনেক তৃণমূল কর্মী সমর্থক তৃণমূলের চিন্তা বাড়িয়ে বিজেপিতে যোগদান করলেন। বীরভূম জেলা বিজেপির জেলা কমিটির সদস্য ফনিরঞ্জন রায় তাঁদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন।

তৃণমূলের যুব সভাপতি তুষার কান্তি সাহার নেতৃত্বে এত সংখ্যক তৃণমূল কর্মী আজ বিজেপিতে যোগ দেন। তুষার কান্তি সাহা বলেন, ‘এক সময় আমরা ঘাম আর রক্ত ঝড়িয়ে এই দল গড়েছিলাম। কিন্তু আমরা প্রতিদিনই এখন দলে লাঞ্ছনার শিকার হই, এই দলে আমাদের আর কোন সন্মান দেওয়া হয়না। যারা টাকা খেয়ে বসে আছে, যারা দুর্নীতি করতে দক্ষ এই দল এখন তাঁদের জন্যই। আমার মতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাবে। তাই আমরা সদলবলে আজ বিজেপিতে যোগদান করলাম।”

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.