বিকাশ এসেছে দেশের সকল মধ্যবিত্ত নাগরিকের ঘরে। এবং তা এসেছে মোদী সরকারের সৌজন্যেই। নিজের মুখেই তা বললেন নরেন্দ্র মোদী।

শুক্রবার সন্ধ্যায় মহারাষ্ট্রের রাজধানী শহরে এনডিএ শরিকদের আয়োজিত সভায় হাজির ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ওই সভায় ওই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিস, শিবসেনা প্রশান উদ্ভব ঠাকরে এবং আরপিআই প্রধান রামদাস আটওয়ালে উপস্থিত ছিলেন।

এই জনসভা থেকেই দেশের মধ্যবিত্ত নাগরিকদের সুবিধার্থে তাঁর সরকার কর্তৃক গৃহীত প্রচেষ্টা এবং সেই প্রচেষ্টার সফলতার কথা বলেছেন মোদী। তাঁর কথায়, “একসময়ে মধ্যবিত্ত নাগরিকদের কাছে টেলিফোনের বিল একটা বড় বিষয় ছিল। সেই বিল মেটাতে অনেক চাপ পোর্ট সংসারের উপরে। আমাদের সরকারের প্রচেষ্টার কারণে সেই খরচ এখন প্রায় নেই বললেই চলে।”

একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী আরও দাবি করেছেন, “বিশ্বের মধ্যে সবথেকে কম খরচে ইন্টারনেট ব্যবহার করা যায় ভারতে।” এই বিষয়টিও তাঁর সরকারের প্রচেষ্টার ফল বলেই দাবি মোদীর।

২০১৬ সালের শেষের দিক থেকে ভারতে টেলিকম জগতে বিপ্লব ঘটেছে। বিনা খরচে ইন্টারনেট ব্যবহারের সুযোগ করে দেয় রিলায়েন্স। পরে অবশ্য সেই পরিষেবার খরচ আর ফ্রি নেই। তবে অনেকটাই কম। আম্বানি গোষ্ঠীর সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে অন্য সংস্থাগুলিও একই পথে হাঁটতে শুরু করে। অনেকটাই কমে যায় ফোন ব্যবহারের খরচ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.