পশ্চিমবঙ্গের ৫০% মানুষ করোনা টিকার ১ ডোজ পেয়েছেন, তবে শনিবার বাড়ল সংক্রমণের হার

রাজ্যের ৫০ শতাংশ মানুষ করোনাভাইরাস টিকার কমপক্ষে একটি ডোজ পেয়েছেন। এমনই দাবি করল নবান্ন। তারইমধ্যে শনিবার রাজ্যে করোনার সংক্রমণের হার বেড়েছে। মৃতের সংখ্যাও ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে।

শনিবার স্বাস্থ্য দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, সন্ধ্যা ছ’টা পর্যন্ত ১১.৫ লাখ ডোজ টিকা প্রদান করা হয়েছে। তার ফলে পশ্চিমবঙ্গের ৫০ শতাংশ মানুষ করোনার টিকার কমপক্ষে একটি ডোজ পেয়ে গিয়েছেন। সবমিলিয়ে রাজ্যে মোট পাঁচ কোটি করোনার ডোজ দেওয়া হয়েছে। শেষ ১৮ দিনেই এক কোটি ডোজ দিয়েছে রাজ্য।

সেই ‘নজিরের’ ছবির মধ্যেই শনিবার রাজ্যে করোনা সংক্রমণ বেড়েছে। স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, সকাল ন’টা পর্যন্ত রাজ্যে ৭২৮ জন নয়া করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। শুক্রবার সেই সংখ্যাটা ছিল ৭১৯। পাশাপাশি শুক্রবারের তুলনায় শনিবার রাজ্যে নমুনা পরীক্ষার সংখ্যাও কমেছে। শেষ ২৪ ঘণ্টায় জেলাভিত্তিক সংক্রমণের শীর্ষে আছে কলকাতা (১২৭) এবং উত্তর ২৪ পরগনা (১২১)। এছাড়াও হাওড়ায় ৬১ জন এবং হুগলিতে ৫৯ জন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে।

শনিবার রাজ্যে বেড়েছে করোনায় মৃতের সংখ্যাও। শেষ ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে।  শুক্রবার ন’জনের প্রাণহানি হয়েছে। শেষ ২৪ ঘণ্টায় সর্বাধিক তিনজন মারা গিয়েছেন কলকাতায়। দু’জন করে মানুষের মৃত্যু হয়েছে দার্জিলিং এবং উত্তর ২৪ পরগনায়। কালিম্পং, হাওড়া, হুগলি, দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং নদিয়ায় মৃত্যু হয়েছে একজন করে করোনা আক্রান্তের। সবমিলিয়ে রাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৮,৬৪১। যা শতাংশের বিচারে ১.১৯।

তারইমধ্যে আশার আলো দেখিয়েছে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা। শনিবার বাংলায় দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ৮,০০০-এর নীচে নেমে গিয়েছে। শেষ ২৪ ঘণ্টায় সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ৪১ কমে দাঁড়িয়েছে ৭,৯৬৭। শনিবার ৭৫৭ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তার ফলে করোনাকে হারিয়ে দিয়েছেন মোট ১৫,৩৪,৪০৬ জন। যা শতাংশের বিচারে ৯৮.৩।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.