পড়ানোর নামে জঙ্গি কার্যকলাপ, মাদ্রাসা ভেঙে গুঁড়িয়ে দিল অসম পুলিশ

মাদ্রাসায় পড়াশোনার নামে চলে জেহাদি কাজকর্ম। এই অভিযোগে মাদ্রাসার শিক্ষক ও সভাপতিকে আগেই গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। এবার মাদ্রাসাও ভেঙে গুঁড়িয়ে দিল অসম পুলিশ।

২৩ জুলাই রাতভর অভিযান মোরাইবাড়ির মাদ্রসা ‘জমিউল হুদা মাদ্রসা’ -তে। সেই অভিযানে মাদ্রসার প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি মুফতি মুস্তাফা এবং মাদ্রাসার ৮ শিক্ষককে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। পুলিশের অভিযোগ, ধৃতরা সকলেই বাংলাদেশের জেহাদি সংগঠন ‘আনসারুল্লাহ বাংলা টিম’ -এর সদস্য।

নেটওয়ার্ক উপড়ে ফেলতে অসমের একাধিক জেলায় তল্লাশি অভিযান চালায় পুলিশ। সেই অভিযানে মুফতি মুস্তাফার সহযোগী আফসার উদ্দিনকে গ্রেফতার করে। এমনকি প্রমাণ নষ্টের অভিযোগে মুফতি মুস্তাফার স্ত্রী আসমিনা খাতুনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

২৮শে জুলাই ওই মাদ্রাসাটি সিল করে দেয় প্রশাসন। সেই সঙ্গে মাদ্রাসার সমস্ত ছাত্র-ছাত্রীকে সাধারণ স্কুলে ভর্তি করা হবে বলে জানায় আসাম সরকার। তারপরই আজ বুলডোজার নিয়ে মাদ্রসায় পৌঁছে যায় প্রশাসনের কর্তারা। ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয় গোটা বাড়ি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.