ভোটের আগে ঘাস ফুল ছেড়ে পদ্ম ফুলে যোগ দিলেন ১০০ তৃণমূল কর্মী সমর্থক

ভোটের আগেই দল বদলের পালা। তৃণমূলে ভাঙন অব্যহত।সামনেই লোক সভা ভোট। তার আগেই গেরুয়া শিবিরের শক্তি বাড়িয়ে উত্তর ২৪ পরগণার গোপালনগরে ১০০ জন তৃণমূলকর্মী যোগ দিলেন বিজেপিতে। তাদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দিলেন জেলা বিজেপির সহ সভাপতি দেবদাস মন্ডল ও শান্তনু ঠাকুর।

সূত্রের খবর, শাসক দলের দুর্নীতি ও গোষ্ঠী দ্বন্দ্বেরকারণেই এই ভাঙন। গোপালনগর ১ নম্বর ও ২নম্বর পঞ্চায়েতের ওই ১০০ জনকর্মী তৃণমূল করলেও তাদের দমিয়ে রাখার চেষ্টারঅভিযোগ তোলে দলত্যাগী কর্মীরা। তারা বলেন, ভোটের সময় তাদের ভোট অন্য কেউ দিয়ে দিত। তাছাড়া সরকারিসুবিধাও তারা পেতেন না বলে অভিযোগ।সদ্য দল ত্যাগ করে বিজেপিতে আসা প্রমথনাথ বলেন, তৃণমূলের প্রথম কান্ডারি আমরা। জন্মলগ্ন থেকে লড়াই করেছি।সিপিএমের হাতে মার খেয়ে গ্রামে তৃণমূল এসেছে।অনেক রক্ত ঝড়িয়েও কোনও সুযোগ সুবিধা পাইনি এই সরকারের কাছ থেকে।যাদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে গিয়ে রক্ত ঝড়েছে আজ তাঁরা তৃণমূলের নেতা। এদিন এই সভায় মুকুল অনুগামী দেবদাস মণ্ডল কয়েক মাস আগেই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। ইতি মধ্যেবনগাঁ বিধানসভা এলাকায় যথেষ্ট জায়গা করে নিয়েছে।তিনি এখন জেলা বিজেপিরসহ-সভাপতি।

বনগাঁ,গোপালনগর, বাগদা সহ বিভিন্ন এলাকায়জনসংযোগ করেকয়েক হাজার তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের দলে টেনেছেন। তিনি বলেন, আমাদেরএবারের লড়াই সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে। মানুষকে ভয় দেখিয়ে, বুথ দখল করে অন্যের ভোট নিজেরা দিয়ে পৌরসভা দখল করা যায়, কিন্তু লোকসভা নয়। আমাদের প্রার্থী শান্তনু ঠাকুর এবারে পরিবর্তনের পরিবর্তন করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.