ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের ওষুধ থেকে জিএসটি তুলে নিচ্ছে কেন্দ্র, ভ্যাকসিনে ট্যাক্স কমবে কিনা পরে সিদ্ধান্ত

করোনা আবহে প্রায় ৮ মাস বাদে জিএসটি কাউন্সিলের বৈঠক হয় গতকাল। আর তাতে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রক। ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের ওষুধের উপর থেকে কর ছাড় দেওয়ার কথাও বলা হয়েছে।

গতকাল রাতে জিএসটি কাউন্সিলের বৈঠকের পর একটি সাংবাদিক সন্মেলনে উপস্থিত হন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সিতারামন। তিনি জানান, দেশ জুড়ে মিউকরমাইকোসিস তথা ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের সংক্রমণ বেড়ে চলেছে। তাই এই রোগের চিকিৎসায় ব্যবহৃত হয় যে ওষুধ, সেই অ্যামফোটেরিসিন বি-এর উপর থেকে আপাতত গুডস অ্যান্ড সার্ভিস ট্যাক্স বা জিএসটি তুলে নেওয়া হচ্ছে।


পাশাপাশি কোভিডের ভ্যাকসিন কিংবা করোনা চিকিৎসায় ব্যবহৃত অত্যাবশ্যকীয় ওষুধ ও অন্যান্য সামগ্রীর উপর থেকে কর কাটছাঁট করা হবে কিনা আগামী দিনে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। আগামী ৮ জুন এ নিয়ে বৈঠক করা হবে বলে খবর।

চলতি অর্থবর্ষে এটাই ছিল জিএসটি কাউন্সিলের প্রথম বৈঠক। ভার্চুয়াল মাধ্যমেই বৈঠক সম্পন্ন হয়। নির্মলা সিতারামন ছাড়াও বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রাজ্য গুলির অর্থমন্ত্রী এবং অন্যান্য উচ্চপদস্থ আধিকারিক। জিএসটি সংক্রান্ত যে ক্ষতির মুখোমুখি আগামী দিনে হতে হবে রাজ্যগুলিকে তার কথা ভেবে ১.৫৮ লক্ষ কোটি টাকা ঋণ নেবে কেন্দ্র, এদিন তেমনটাই জানান কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।

চলতি মাসের শুরুর দিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রের কাছে আর্জি জানিয়েছিলেন বর্তমান পরিস্থিতির নিরিখে কোভিড সামগ্রীর উপর থেকে জিএসটি তুলে নেওয়া হোক। কিন্তু সে সময় মমতার চিঠির জবাব দিয়েছিলেন নির্মলা। একাধিক টুইট করে তিনি বুঝিয়েছিলেন জিএসটি কমানো সম্ভব নয়। এখন আগামী ৮ জুন বৈঠকে কী সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় সেটাই দেখার।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.