তামিলনাড়ু স্বাস্থ্যপরিষেবা ও শিক্ষা ব্যবস্থায় দৃষ্টান্ত স্থাপনের পর টাকার বিনিময়ে ভোট কেনার নতুন পন্থাতে দেশের মধ্যে অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছে। আর এর ফল হাতে নাতে পাওয়া গেল নির্বাচন কমিশন রাজ্যের ভেল্লোর লোকসভা কেন্দ্রের ভোটগ্রহনের পূর্বাদেশ প্রত্যাহার করে নেওয়ার ফলে। ঐ কেন্দ্রের ডিএমকে প্রার্থী ছিলেন সেই দলের কোষাধ্যক্ষ এস ডুরাইমরুগনের পুত্র কাঠির আনন্দ। সম্প্রতি নির্বাচন কমিশন ও আয়কর দপ্তর হানা দিয়ে ভেল্লোর লোকসভা কেন্দ্রের একটি সিমেন্ট গুদাম থেকে ২০০ টাকার নোটের বাণ্ডিল উদ্ধার করেছে যার মূল্য ১০.৪৮ কোটি টাকা। গদামটির মালিক একজন ডিএমকে দলের কার্যকর্তা। এর আগে ডুরাইমরুগনের ঘরে তল্লাসি করে ১০.৫৩ লক্ষ টাকা পাওয়া যায়।

অন্য একটি তল্লাসি করে আন্দিপট্টি বিধানসভা এলাকায় টিটিভি দিনাকরনের এএমএমকে দলের নির্বাচন অফিস থেকে ১.৪৮ কোটি টাকা উদ্ধার হয়েছে। ঐখানে টাকাগুলি বুথ কেন্দ্রের তথ্য সহযোগে আলাদা করে সাজানো অবস্থায় পাওয়া যায়।

এপর্যন্ত কমিশন ঐ রাজ্যে নগদ ১৩৮.৫৭ কোটি টাকা এবং ২৯৪.৩৮ কোটি টাকার সোনা ও রূপা তল্লাসি করে উদ্ধার করেছে।

‘টাকার বিনিময়ে ভোট’ এই বিষয়টি তামিলনাড়ুতে প্রথম নয় এর অগে বিভিন্ন নির্বাচনে দেখা গেছে ডিএমকে ও এআইএডিএমকে উভয় দলই টাকা দিয়ে ভোট নেওয়ার নতুন নতুন পন্থা অবলম্ব করেছে।

রাজনৈতিক নেতাদের এই টাকার বিনিময়ে ভোট নেওয়ার প্রবনতা উত্তরোত্তর বেড়ে চলায় এটা অজ সত্যি ভাবনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। রাজনৈতিক নেতারা ঐ টাকা ফেরত পেতে নির্বচন পরবর্তি কালে বিভিন্ন অসাধু উপায় অবলম্বন করবে এটাই স্বাভাবিক। যা প্রকারান্তরে দুর্নিতিকেই প্রশ্রয় দেবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.