মনে রাখতে হবে দারিভিটে যারা প্রাণ উৎসর্গ করেছিলেন তাঁরা ছিলেন ছাত্র এবং তাদের অপরাধ ছিলো নিজের মাতৃভাষার প্রতি অকৃত্তিম ভালোবাসা

বিচারের বাণী নীরবে নিভৃতে কাঁদে।
৩ বছর হয়ে গেলো এখনো রাজেশ তাপস বিচার পেলো না।
এই হতভাগা পশ্চিমবঙ্গে সুবিচার পাবেও বলে মনে হয় না ,কারণ পশ্চিমবঙ্গবাসী রাজেশ তাপস হত্যাকারীদেরই ক্ষমতায় বসিয়েছে।
পশ্চিমবঙ্গের ইতিহাসে সাম্প্রতিককালে সবথেকে নৃশংসতার ঘটনা ; অনেকে নন্দীগ্রাম বা ২১শে জুলাই এর কথা বলবেন ,
কিন্তু মনে রাখতে হবে দারিভিটে যারা প্রাণ উৎসর্গ করেছিলেন তাঁরা ছিলেন ছাত্র এবং তাদের অপরাধ ছিলো নিজের মাতৃভাষার প্রতি অকৃত্তিম ভালোবাসা।
পশ্চিমবঙ্গবাসী খুব তাড়াতাড়ি ভুলে যান , আর এই বিষয়ে তাদের সাহায্য করেন বাংলার সমস্ত পেটো মিডিয়া।
যেমন করে মানুষ এখন কামদুনি ভুলে গিয়েছে , পার্কস্ট্রিট ভুলে গিয়েছে , হলদিয়া ভুলে গিয়েছে ।
বাংলা ভাষার সম্মান রক্ষার জন্য প্রাণ দিয়েছিলো দুই ছাত্র।
দারিভিট গ্রাম , স্কুলের মাঠ রক্তাক্ত হয়েছিল দুই ছাত্রের রক্তে ,তখন চটিচাটা কোনো বাংলাপক্ষ ছিলো না ,থাকলেও এর প্রতিবাদ করতো না।
তাপস , রাজেশের বলিদান আমরা ভুলছি না , ভুলবো না ।
সকলকে অনুরোধ , ২০শে সেপ্টেম্বর পশ্চিমবঙ্গে বাংলা ভাষা দিবস পালন করুন ।।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.