কংগ্রেসের সমালোচনা করে অরুণাচলে প্রধানমন্ত্রী বলেন: ‘মালাই’ খেতে এত ব্যস্ত ছিল যে উত্তর পূর্বঞ্চলের ‘ভালাই’ করতে ভুলে গিয়েছিল

অরুণাচল প্রদেশের পশ্চিম সিয়াঙ জেলার আইটিবিপি মাঠে একটি জনসভায় বক্তব্য রাখার সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি প্রদেশের জনগণকে দেশের উত্তর-পূর্ব সীমান্তের সতর্ক অভিভাবক হওয়ার জন্য অভিবাদন ও ধন্যবাদ জানান ।
প্রধানমন্ত্রী বলেন অরুণাচলের বাসিন্দারা শীঘ্রই মপিন উৎসব উদযাপন করতে চলেছে , আর সম্প্রতি ডিডি অরুণ প্রভাত চ্যানেলের সম্প্রচারন শুরু হয়েছে যার মাধ্যমে সমগ্র দেশ ও বিশ্ব এই উৎসব পালন করবে।

প্রধানমন্ত্রী অরুণাচল বাসিকে অধিক উৎসাহ ও উদ্দীপনা সহযোগে উৎসব পালনের কথা বলেন যাতে বিশ্বের লোক দেখতে পায় যে রাজ্যটি কতটা স্পন্দনশীল এবং রঙিন।

সীমান্তবর্তী রাজ্যটির সঙ্গে দেশের অন্য প্রান্তের মধ্যে দীর্ঘদিনের চলে আসা পার্থক্য নিবারনের জন্য তাঁর সরকারের নেওয়া বিভিন্ন বুনিয়াদী ও গঠনমূলক কাজের উন্নয়নের কথা ডুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী মোদি।

জনগণের ভোট ও সহযোগিতার কারণে তাঁর সরকার রাজ্যের ৫০,০০০ পরিবারকে বিদ্যুৎ সংযোগ পেতে সাহায্য করতে সক্ষম হয়েছে, ৪০,০০০ নারীকে বিনামূল্যে গ্যাস সংযোগ এবং ১ লাখেরও বেশি পরিবারকে শৌচালয়ের ব্যবস্থা সহ ৫০০০ গ্রামে খোলা জায়গায় শৌচ বন্ধ হয়েছে বলে প্রধানমন্ত্রী তাঁর ভাষণে উল্লেখ করেছেন। রাজ্যের ৩ লাখ মানুষের নতুন ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলা এবং ছোট উদ্যোক্তাদের মুদ্রা যোজোনার অধীনে ১০০ কোটি টাকা ঋণ দেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী মোদী উল্লেখ করেন জনগণের সমর্থনের কারণে দূরবর্তী অঞ্চলে পরিচ্ছন্ন পানীয় জলের সুবিধা করা হয়েছে, তার সঙ্গে রাজ্যটির প্রথম উপজাতী বিষয়ক গবেষণা কেন্দ্র এবং প্রথম সৈনিক স্কুল স্থাপন হয়েছে।

স্বাধীনতার ৭ দশক পর, অরুণাচল এখন ভারতের রেল মানচিত্রে যুক্ত হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন যে বগিবীল সেতুটি নির্মাণের ফলেপূর্ব জেলার সঙ্গে যোগায়োগ সময় ১৬ ঘন্টা থেকে কয়েক ঘন্টার মধ্যে কমে গিয়েছে।

কেন্দ্রীয় সরকারের মন্ত্রীরা নিয়মিতভাবে রাজ্যর পরিদর্শন করবেন এবং জনগণের সাথে যোগাযোগ করে কার্যকর শাসন নিশ্চিত করবেন এটা তাঁর সরকার নিশ্চিত করেছে।

প্রধানমন্ত্রী মোদি বলেছেন যে কংগ্রেসের ‘নামদাররা’ এবং তাদের ‘দরবারি’ জানত যে অরুণাচল প্রদেশে আধুনিক পরিকাঠামো এবং দ্রুত বিকাশের প্রয়োজন ছিল, কিন্তু তারা ‘মালাই’ খেতে এত ব্যস্ত ছিল যে তারা কাজের ‘ভালাই’ করতে ভুলে গিয়েছিল।

প্রধানমন্ত্রী মোদি বলেন যে রাজ্যের দ্রুত বিকাশ প্রমাণ করে যে রাষ্ট্র নির্মাণ ও রূপান্তরের ক্ষেত্রে , ৫৫ বছর ধরে ক্ষমতার জন্য লোভের চেয়ে ৫ বছরের পরিষেবার মানসিকতা বেশি কার্যকর।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.