গত সপ্তাহেই দক্ষিণ মুম্বই লোকসভা কেন্দ্রের কংগ্রেস প্রার্থী মিলিন্দ দেওরার সমর্থনে মুখ খুলেছিলেন ভারতের ধনকুবের মুকেশ আম্বানি। এক সপ্তাহ পরে এ বার মুম্বইয়েই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নির্বাচনী জনসভায় একদম সামনের সারিতে বসে থাকতে দেখা গেল মুকেশ আম্বানির বড় ছেলে অনন্ত আম্বানিকে।

শুক্রবার মুম্বইয়ে নির্বাচনী জনসভা করেন মোদী। সেখানে সামনের সারিতে বিজেপি নেতদের সঙ্গে বসে থাকতে দেখা যায় অনন্ত আম্বানিকে। এ ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “আমি এখানে এসেছি প্রধানমন্ত্রী মোদীর বক্তব্য শুনতে ও দেশকে সমর্থন করতে।” গত সপ্তাহে দক্ষিণ মুম্বইয়ের কংগ্রেস প্রার্থী মিলিন্দ দেওরা নিজের টুইটারে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেন। সেখানে দেখা যায়, মুকেশ আম্বানি বলছেন, “মিলিন্দ দক্ষিণ মুম্বইয়েরই মানুষ। দক্ষিণ মুম্বই লোকসভার সামাজিক, অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক পরিবেশ সম্পর্কে ওঁর অনেক জ্ঞান আছে।” বাবা-ছেলের আলাদা আলাদা দলের সমর্থনে মুখ খোলায় স্বভাবতই জল্পনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

এই বিষয়ে পর্যবেক্ষদের একাংশের বক্তব্য, মুকেশ আম্বানি আসলে ব্যবসায়ী। তাই প্রতিটি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো রাখতে হয় তাঁদের। আম্বানি হয়তো বুঝতে পেরেছেন, এ বার বিজেপি-কংগ্রেস হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে চলেছে। আর তাই দু’পক্ষের সঙ্গেই সম্পর্ক ভালো রাখতে চেয়েছেন তিনি। তাই নিজে কংগ্রেস প্রার্থীর সমর্থনে মুখ খোলার পরেই ছেলেকে পাঠিয়েছেন মোদীর বৈঠকে।

অবশ্য মুকেশ আম্বানি কংগ্রেস প্রার্থীর সমর্থনে মুখ খুললেও তাঁর ভাই অনিল আম্বানির সঙ্গে কিন্তু কংগ্রেসের সম্পর্ক আদায়-কাঁচকলায়। রাফায়েল চুক্তি নিয়ে বারবার মোদীর সঙ্গে অনিল আম্বানির নামও তুলে এনেছেন রাহুল গান্ধী। বলেছেন, টাকা নিয়ে অনিল আম্বানির কোম্পানিকে ৩৬টি বিমান তৈরির বরাত দিয়েছেন মোদী।

মুকেশ আম্বানির সঙ্গে অনিল আম্বানির সম্পর্কও খুব একটা ভালো ছিল না। ২০০২ সালে কোনও উইল না করেই ধীরুভাই আম্বানি মারা যাওয়ার পর সম্পত্তি নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে বিবাদ হয়। অনিল আম্বানি যেখানে টেলিকম ব্যবসা নিজের হাতে নেন, অন্যদিকে তেল ও পেট্রোলিয়াম ব্যবসা আসে মুকেশ আম্বানির হাতে। যদিও পরবর্তীকালে জিও-র হাত ধরে টেলিকম শিল্পেও জোয়ার আনেন মুকেশ।

২০১০ সালে অবশ্য তাঁদের মা কোকিলাবেনের মধ্যস্থতায় দুই ভাইয়ের সম্পর্ক ভালো হয়। গত মাসে অনিল আম্বানিকে জেল যাওয়ার হাত থেকেও বাঁচান মুকেশ। অনিলের ৪৫৮ কোটি টাকার দেনা শোধ করেন মুকেশ আম্বানি। সম্প্রতি মুকেশ আম্বানির ছেলে আকাশ ও মেয়ে ইশার বিয়েতেও দেখা গিয়েছিল অনিল ও টিনা আম্বানিকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.