টিকার দু’টি ডোজ নিলে মৃত্যুর ঝুঁকি কমবে ৯৫ শতাংশ, দাবি ICMR-এর

করোনা সংক্রমণে মৃত্যু ঠেকাতে কোভিড-১৯ টিকার একটি ডোজ যথেষ্ট কার্যকরী। জানাল দ্য ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ আর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ এপিডেমিওলজি। এ বিষয়ে গবেষণায় আইসিএমআর জানায়, পরীক্ষা-নিরীক্ষায় দেখা গিয়েছে যে, মৃত্যু আটকাতে একটা ডোজও কার্যকরী। বর্তমান পরিস্থিতিতে মৃত্যু রোধে আর ভবিষ্যতেও কোভিড-এর একাধিক ঢেউ সামলাতে এখন ভ্যাকসিন আরও বেশি করে ছড়িয়ে দেওয়া দরকার। আইসিএমআর দাবি করে, টিকার দু’টি ডোজ নেওয়া হলে মৃত্যুর ঝুঁকি কমে যায় ৯৫ শতাংশ।

তামিলনাড়ু পুলিশের উপর একটি সমীক্ষা চালায় আইসিএমআর। ১,১৭,৫২৪ জন নিরাপত্তারক্ষী কাজ করছিল তামিলনাড়ু পুলিশের দফতরে। এবছরের ১ ফেব্রুয়ারি আর ১৪ মে ৩২,৭৯২ জন একটি ডোজ নেন। ৬৭,৬৭৩ জন দুটি ডোজ নেন, কিন্তু ১৭,০৫৯ জন কর্মী কোনও ডোজ নেননি। ১৩ এপ্রিল আর ১৪ মে-র মধ্যে ৩১ জন নিরাপত্তারক্ষী মারা যান করোনা সংক্রমণে।

আইসিএমআর জানাচ্ছে, মৃত ৩১ জনের মধ্যে ৪ জন ভ্যাকসিনের ২টি ডোজ নিয়েছিলেন, ৭ জন একটি ডোজ আর ২০ জন ভ্যাকসিন নেননি। ভ্যাকসিন না নেওয়া ব্যক্তিদের থেকে তুলনায় ১টি আর ২টি ডোজ নেওয়া ব্যক্তির ক্ষেত্রে কোভিড-১৯-এ মৃত্যুর ঝুঁকি যথাক্রমে ০.১৮ ও ০.০৫।

টিকার ১টি ডোজ ও ২টি ডোজ নিলে কোভিড-১৯-এ মৃত্যু রোধের সম্ভাবনা যথাক্রমে ৮২% ও ৯৫%। এদিকে অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকা ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের প্রকাশিত ফলাফল বলছে হাসপাতালে যাওয়া আটকাতে ৯৭.৫% কার্যকরী। অপরদিকে ভারত বায়োটেকের তরফে দাবি করা হয়েছে কোভ্যাক্সিনের কার্যকারিতা হল ৭৭.৮ শতাংশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.