Formalin in Fish: বাজারের মাছে ভয়ানক বিষাক্ত ফর্মালিন থাকতে পারে! এর পরে মাছ বিষমুক্ত করবেন কীভাবে

1/9কমবেশি বেশির ভাগ বাঙালিরই প্রিয় খাবার হল মাছ। মাথ-ভাত ছাড়া অধিকাংশ বাঙালিরই দুপুরের খাবার সম্পূর্ণ হয় না। কিন্তু এই মাছই বিপদের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে সেটি সরাসরি মাছের জন্য নয়, বলা ভালো, মাছে থাকা রাসায়নিকের জন্য।

2/9এই রাসায়নিকটির নাম ফর্মালিন। মাছ দীর্ঘ দিন তাজা রাখার জন্য অনেকে এই মাছে মেশান। এণনকী ফলেও মেশান বহু ব্যবসায়ী। এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে মাছ নিয়ে যেতে হলে দীর্ঘ দিন তাজা রাখার দরকার পড়ে। আর তাই সে সব মাছে আরও বেশি পরিমাণে ফর্মালিন মেশানো হয়।

3/9ফর্মালিন দিলে মাছ না হয় তাজা থাকে, কিন্তু যিনি সেই মাছ খাচ্ছেন, তাঁর শরীরেও যায় এই রাসায়নিক। তার মারাত্মক প্রভাব পড়ে শরীরের উপর। এটি ডেকে আনতে পারে ক্যানসারের মতো অসুখ, হরমোনের সমস্যা ইত্যাদি। কিন্তু ফর্মালিন ছাড়া মাছ চেনা খুব কঠিন। তাই ভুল করে ফর্মালিন দেওয়া মাছ কিনে নিলে কী হবে?

4/9ফর্মালিন মেশানো মাছ থেকে দূরে থাকাই ভালো। কিন্তু ভুল করে তেমন মাছ কিনে ফেললেও, তা থেকে ফর্মালিন দূর করা যায়। তার জন্য কয়েকটি ঘরোয়া উপায়ই ষথেষ্ট। দেখে নিন, কীভাবে মাছ থেকে ফর্মালিন দূর করবেন।

5/9১। ভিনিগার মেশানো জল: একটি পাত্রে জল নিয়ে তাতে ২ চামচ ভিনিগার মিশিয়ে নিন। তার পরে বাজার থেকে কেন মাছ এই ভিনিগার মেশানো জলে ডুবিয়ে রাখুন। অন্তত ১৫ মিনিট রেখে দিন। এর ফলে ৬০ শতাংশ পর্যন্ত ফর্মালিন দূর হবে। তবে ভিনিগার মেশানো জলে ভিজিয়ে রাখার পরে মাছ সাধারণ জলে ধুয়ে নেবেন। তার পরে রান্না করবেন।

6/9২। চাল ধোয়া জল: ত রান্নার আগে চাল তো ধুয়েই নেন। সেই জল ফেলে দেবেন না। এটি ফর্মালিন দূর করতে দারুন কাজের। প্রথমে এই জল একটি বাটিতে রাখুন। তার পরে জলটি দিয়ে ভালো করে আগে মাছ ধুয়ে নিন। তারপর এমনি জল দিয়ে আবার মাছ ধুয়ে নিন। সমীক্ষা বলছে এতে মোটামুটি ৭০ শতাংশ ফর্মালিন দূর হয়ে যায়।

7/9৩। নুন জল: একটি পাত্রে জল দিয়ে তাতে ১ চামচ নুন মিশিয়ে দিন। এবার এর মধ্যে বাজার থেকে কেনা মাছ ডুবিয়ে রাখুন। অন্তত এক ঘণ্টা রেখে দিন। এর পরে সাধারণ জলে ধুয়ে রান্না করুন। এতে ৯০ শতাংশ পর্যন্ত ফর্মালিন দূর করা যাবে।

8/9৪। আপনি কি শুঁটকি মাছ খেতে ভালোবাসেন? এই মাছেও থাকতে পারে ফর্মালিন। এটি দূর করার জন্য গরম জল ব্যবহার করা উচিত। গরম জলে শুঁটকি মাছ এক ঘণ্টা ডুবিয়ে রাখলে ফর্মালিন দূর হয়ে যায়। তারপর সাধারণ তাপমাত্রার জলে ধুয়ে রান্না করতে হয়। মনে রাখবেন, এই পদ্ধতিতে এমনি মাছ ধুতে যাবেন না। এটি শুধু শুঁটকি মাছের জন্যই।

9/9৫। সাধারণ জল: আর কোনও কিছু না পেলে এই জল দিয়েও মাছ ধুয়ে নিতে পারেন। তাতে কিছুটা ফর্মালিন দূর হবে তবে এটি একটু সময়সাপেক্ষ। ১ ঘণ্টা সাধারণ জলে মাছ ভিজিয়ে রাখুন। তার পরে তুলে অন্য জলে ধুয়ে ফেলুন। এতে ৬০ শতাংশ ফর্মালিন মাছ থেকে দূর হয়ে যাবে। হাতে সময় থাকলে এটি চেষ্টা করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.