পুজোর আগে মন ভাল করে দেবে এশিয়ান পেইন্টসের ‘বাড়ির লোক’

বছর ঘুরে পুজোর ফিরে আসা, আর শারদ সম্মানে মাকে ভালবাসা। বছরের এই সময়টার জন্যেই অপেক্ষা করে থাকে মানুষ। ২০২১-এর শারদ সম্মান নিয়ে ফের হাজির এশিয়ান পেইন্টস। এ বছরের শারদ সম্মানের ফিল্মটির নাম ‘বাড়ির লোক’।

প্রতি বছর দেশের সমস্ত মানুষ দুর্গা পুজো উদযাপন করার জন্য একত্রিত হন। আরাধনা হয় মায়ের। মেলবন্ধন হয় সংস্কৃতির। সাম্প্রতিক সময়ে, মহামারির কারণে আমরা অনেকেই বাড়ির গুরুত্ব শিখেছি। কারণ এই মুহূর্তে এটি সবথেকে নিরাপদ স্থান। যেখানে আমরা গত কয়েক বছরে সব থেকে বেশি সময় কাটিয়েছি। এশিয়ান পেইন্টস শারদ সম্মান আমাদেরকে সেই বাড়ির কথাই মনে করিয়ে দিচ্ছে। কীভাবে বাড়ির যত্ন নিতে হয় সে কথাই তুলে ধরেছে এশিয়ান পেইন্টস ‘বাড়ির লোক’। ফিল্মের মন ছুঁয়ে যাওয়া ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোর তৈরি করেছেন গায়ক অনুপম রায়।

ফিল্মটি শুরু হচ্ছে একটি বাচ্চা মেয়েকে দিয়ে, যার নাম মিনি। সে তার ঘরে বসে স্কেচ করছে। মায়ের ডাকে সাড়া দেয় মিনি। বাইরে গিয়ে মিনি দেখে তার মা, ঠাকুমা, এবং কাকিমা নতুন জামাকাপড় নিয়ে আলোচনা করছে। এরপরেই মিনির ঠাকুমা তার ও তার ছোট ভাইয়ের হাতে নতুন জামা তুলে দেয়। এরপরেই মিনি প্রশ্ন করে, “তুমি নিলয়কে কিছু দেবে না?” যদিও এখনও পর্যন্ত কেউই জানে না নিলয় কে? কিন্তু মিনির কথা ঠাকুমার মন ছুঁয়ে যায়। এর পরেই পুজোর আবহে এশিয়ান পেইন্টসের ছোঁয়ায় ঘরকে নতুন করে সাজিয়ে তোলা হয়। অবশেষে জানা যায় যে নিলয় কে। ‘নিলয়’ হল তাদের বাড়ির নাম। বাড়িকে নতুন রূপে দেখে খুশি হয়ে যায় মিনি। আনন্দে সে প্রথমে ঘরের দেওয়াল এবং তার পরে ঠাকুমাকে জড়িয়ে ধরে।

ফিল্মটি নিয়ে কথা বলতে গিয়ে, এশিয়ান পেইন্টস লিমিটেডের এমডি ও সিইও অমিত সাইগল জানান, “সেই ১৯৮৫ সাল থেকে এশিয়ান পেইন্টস শারদ সম্মান কলকাতার ঐতিহ্য দুর্গাপুজোর সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করে আসছে। প্রতি বছরই এশিয়ান পেইন্টস শারদ সম্মান পুজোর সৌন্দর্য তুলে ধরার পাশাপাশি এক আনন্দময় উৎসব উদযাপন করে। আমরা আমাদের নিজস্ব ভঙ্গিমায় মা দুর্গাকে সম্মান জানাই। এই বছর আমরা চেয়েছিলাম যে প্রত্যেকের বাড়ির ঐতিহ্যকে তুলে ধরতে। কারণ প্রত্যেকের কাছেই নিজের ঘর যেন স্বর্গ। এই অতিমারির সময়েও এখানেই আমরা আশ্রয় পেয়েছিলাম। তাই প্রত্যেকেরই উচিত ঘরের যত্ন নেওয়া, তাকে নতুন করে সাজিয়ে তোলা, যেমনটা আমরা আমাদের নিজেদের লোকের জন্য করি। ‘বাড়ির লোক’ ফিল্মের মাধ্যমে সেই কথাই মনে করিয়ে দিয়েছে। সেই সঙ্গে পুজোর আগে বাড়ির প্রতিটি অংশ কীভাবে এশিয়ান পেইন্টসের সাহায্যে সাজিয়ে তোলা হয়েছে, তাও তুলে ধরা হয়েছে এই ফিল্মে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.