বেসরকারি স্কুলের ফি দিতে না পারলেও পরীক্ষায় বসতে দিতে হবে পড়ুয়াকে: হাইকোর্ট

বেসরকারি স্কুলের বেতন মকুবের দাবিতে দায়ের মামলায় অভিভাবকদের কিছুটা স্বস্তি দল আদালত। শুক্রবার এই মামলার শুনানিতে কলকাতা হাইকোর্টের তরফে জানানো হয়েছে, কোনও পড়ুয়ার অভিভাবক বেতন না দিলেও পড়ুয়াকে স্কুল থেকে বিতাড়িত করা যাবে না। এমনকী পরীক্ষায় বসতে দিতে হবে তাঁকে।

শুক্রবার এই মামলার শুনানিতে বেসরকারি স্কুলগুলির তরফে দাবি করা হয়, আদালতের নির্দেশ থাকা সত্বেও বেতন মেটাচ্ছেন না অভিভাবকরা। পালটা অভিভাবকরা বলেন, ইতিমধ্যে ৮০ শতাংশ বেতন মিটিয়ে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু বর্ধিত বেতন দেওয়া হয়নি।ট্রেন্ডিং স্টোরিজ

এদিন আদালতে অভিভাবকদের তরফে দাবি করা হয়, অনেক অভিভাবক বেতন সম্পূর্ণ পরিশোধ করতে না পারায় পড়ুয়াদের পরীক্ষায় বসতে দেওয়া হচ্ছে না। এই অভিযোগের সত্যতা জানতে চায় বিচারপতি ইন্দ্রপ্রসন্ন মুখোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ। তার পর আদালত জানায়, পরীক্ষা না দেওয়ায় কোনও পড়ুয়াকে বহিষ্কার করতে পারবে না স্কুল। বসতে দিতে হবে সমস্ত পরীক্ষায়।

আদালতের তরফে নির্দেশে বলা হয়েছে, সমস্ত অভিভাবককে অবিলম্বে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের বকেয়ার ৫০ শতাংশ শোধ করতে হবে। এমনকী সরকারি চাকুরেদের সম্পূর্ণ ফি পরিশোধ করা উচিত বলে জানিয়েছে আদালত। তবে লকডাউনে যে সব পরিষেবা স্কুল দিতে পারেনি তার ফি নেওয়া যাবে না বলে জানিয়েছেন বিচারপতিরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.