২০ বছরের ক্রিকেট জীবনে সব থেকে বড় আক্ষেপ কী? বিদায়ের আগে বলে দিলেন ঝুলন

২০ বছরের দীর্ঘ ক্রিকেট জীবন শেষ হতে চলেছে। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে শনিবার তৃতীয় এক দিনের ম্যাচ খেলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানাবেন ঝুলন গোস্বামী। বিদায়ের আগে ভারতীয় মহিলা দলের ক্রিকেটার জানালেন, দেশের হয়ে বিশ্বকাপ জিততে না পারা তাঁর জীবনের একমাত্র আক্ষেপ।

লর্ডসে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলতে নামার আগের দিন সংবাদমাধ্যমে ঝুলন বলেন, ‘‘আমি দু’টো বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলেছি। কিন্তু জিততে পারিনি। এটাই আমার একমাত্র আক্ষেপ। কারণ, বিশ্বকাপ চার বছর অন্তর হয়। প্রত্যেক ক্রিকেটারের স্বপ্ন থাকে দেশের হয়ে বিশ্বকাপ জেতা।’’

ভারতের হয়ে দীর্ঘ দু’দশক ধরে খেলবেন, স্বপ্নেও ভাবেননি ঝুলন। তার জন্য অনেক পরিশ্রম করেছেন। তার ফল পেয়েছেন। ঝুলন বলেন, ‘‘যে দিন খেলা শুরু করেছিলাম, সে দিন ভাবিনি এত দিন ধরে খেলব। তার জন্য অনেক পরিশ্রম করতে হয়েছে। নিজেকে ফিট রাখতে হয়েছে। এত দিন ধরে খেলতে পারার জন্য ঈশ্বরকে ধন্যবাদ।’’

ক্রিকেট কেরিয়ারের সব থেকে বড় আক্ষেপের পাশাপাশি কেরিয়ারের সব থেকে আনন্দের মুহূর্তের কথাও জানিয়েছেন ৩৯ বছর বয়সি এই পেসার। ঝুলন বলেন, ‘‘প্রথম বার ভারতীয় দলের টুপি পরা আমার জীবনের সব থেকে বড় মুহূর্ত। প্রথম ওভার বল করতে গিয়ে অনেক কিছু মনে পড়ে যাচ্ছিল। প্রতি দিন কত কষ্ট করে অনুশীলন করতে যেতাম, সেই কথা মনে পড়ছিল। কারণ, যাত্রা সহজ ছিল না। অনেক কষ্ট করতে হয়েছিল।’’

ভারতের হয়ে এখনও পর্যন্ত ২০৩টি এক দিনের ম্যাচ খেলেছেন ঝুলন। নিয়েছেন ২৫৩টি উইকেট। মহিলাদের ক্রিকেটে তিনিই একমাত্র ক্রিকেটার যিনি ২০০-র বেশি উইকেট নিয়েছেন। ভারতের হয়ে ১২টি টেস্টে ৪৪টি উইকেট নিয়েছেন তিনি। ৬৮টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে নিয়েছেন ৫৬টি উইকেট।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.