Sakshi Malik: শেষ মুহূর্তে রুদ্ধশ্বাস জয়, কমনওয়েলথ গেমসে সোনা সাক্ষী মালিকের

বজরং পুনিয়ার পর এ বার সাক্ষী মালিক। এক ঘণ্টার মধ্যে কুস্তি থেকে ভারতের ঘরে এল দু’টি সোনা। ৬২ কেজি বিভাগে সোনা জিতলেন সাক্ষী। শনিবার ফাইনালে কানাডার আনা গোদিনেজ গঞ্জালেজের বিরুদ্ধে ০-৪ পিছিয়ে পড়েছিলেন। এর পর টানা চারটি পয়েন্ট জেতেন সাক্ষী। পয়েন্ট সমান থাকলেও ‘ভিকট্রি বাই ফল’-এর বিচারে সাক্ষী জিতে যান।

কমনওয়েলথ গেমসে এই নিয়ে ভারতের আটটি সোনা হয়ে গেল। পরে দীপক পুনিয়া সোনা জেতায় সংখ্যা বাড়ল।বজরংয়ের মতো সাক্ষীও টানা তিনটি কমনওয়েলথে পদক জিতলেন। তবে সোনা এই প্রথম। এর আগে ২০১৪-র গ্লাসগো কমনওয়েলথ তিনি ৫৮ কেজি বিভাগে রুপো জিতেছিলেন। ২০১৮ গোল্ড কোস্ট গেমসে ব্রোঞ্জ জেতেন। এ বার পদকের রং বদলে সোনা এল।

সাক্ষীর জীবনের সবচেয়ে বড় কৃতিত্ব নিঃসন্দেহে অলিম্পিক্স পদক। ২০১৬ রিয়ো অলিম্পিক্সে ৫৮ কেজি বিভাগে আইসুলু টিনিবেকোভাকে হারিয়ে ব্রোঞ্জ পদক জেতেন। এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে চারটি পদক রয়েছে তাঁর। ২০১৭-য় রুপো পেয়েছিলেন। বাকি তিন বার ব্রোঞ্জ জিতেছেন।

অলিম্পিক্স পদকের পর দীর্ঘ দিন প্রতিযোগিতার বাইরে ছিলেন সাক্ষী। চোট-আঘাত তাঁকে খুবই সমস্যায় ফেলেছিল। বিশেষত হাঁটুর চোটে খেলতে পারেননি অনেক দিন। তবে এ বছর তিনি ছন্দেই রয়েছেন। ইস্তানবুলের ইয়াসার দোগু প্রতিযোগিতায় খেলেছেন। টিউনিশ র‌্যাঙ্কিং সিরিজে ব্রোঞ্জ পেয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.