আবুধাবিতে জোর কদমে কাজ চলছে প্রথম হিন্দু মন্দির নির্মাণের।

পাকিস্তানকে চাপে রাখতে আরব দেশগুলির সঙ্গে বন্ধুত্ব আরও সুদৃঢ় করতে চাইছে মোদী সরকার। আর এই আবহেই সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে তৈরি হচ্ছে প্রথম হিন্দু মন্দির। এই নিয়ে ভারতের সঙ্গে জোর আলোচনাও চালাচ্ছেন UAE-এর প্রশাসনিক কর্তারা। সম্প্রতি দেশের বিদেশমন্ত্রী শেখ আবদুল্লা বিন জায়াদ আল নাহয়ান আবুধাবিতে হিন্দু মন্দিরের নির্মানের অগ্রগতি নিয়ে মন্দির কমিটির প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর ভারতীয় রাষ্ট্রদূত পবন কাপুরও উপস্থিত ছিলেন। শেখ আবদুল্লাহর হাতে মন্দিরে কমিটির তরফে একটি সোনার স্মারকও  উপহার হিসাবে তুলে দেওয়া হয়।

গতবছর এপ্রিলেই এই মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়। ডিসেম্বরে শুরু হয় নির্মাণ কাজ। উল্লেখ্য, আবুধাবিতে এই প্রথম কোনও হিন্দু মন্দির নির্মাণের কাজ হচ্ছে।  ভারতের চিরাচরিত মন্দির নির্মানের ঐতিহ্যকে বজায় রেখে ভারী পাথর দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এই মন্দির।  যেখানে কোনরূপ লোহার সামগ্রী ব্যবহার করা হচ্ছে না।মন্দিরের বাইরের অংশে ২,২৫০ টন গোলাপি রঙের বেলে পাথর দিয়ে কারুকার্য করা হবে।

সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে প্রায় ৩০ লক্ষ ভারতীয় বসবাস করেন। ২০১৮ সালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দুবাইয়ের অপেরা হাউস থেকে ভিডিও কনফারেন্সিং-এর মাধ্যমে এই মন্দিরের শিলান্যাস করেছিলেন।

দিন যত যাচ্ছে ততই  সংযুক্ত আরব আমিরশাহী সঙ্গে ভারতের ব্যবসায়িক সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হচ্ছে । কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা রদ করার বিষয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে গিয়ে ভারতে সমর্থন করে UAE। এমনকি সম্প্রতি পাকিস্তানের ব্যবহার রুষ্ট  হওয়া দেশটি পাক সরকারকে দেওয়া  ১ আরব ডলার ঋণও দ্রুত ফেরত দেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.