পাঁচ বছরে পাঁচ গুণের বেশি বাড়ল তৃণমূল সাংসদ তথা এ বারের ভোটেও বালুরঘাটের প্রার্থী অর্পিতা ঘোষের সম্পত্তি। নির্বাচন কমিশনকে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গত বারের তুলনায় ব্যাপক সম্পত্তি বেড়েছে নাট্যজগতের এই নক্ষত্রের।

২০১৪ সালের ভোটে যখন অর্পিতা ঘোষ প্রার্থী হন, তখন তিনি কমিশনে দাখিল করা হলফনামায় জানিয়েছিলেন তাঁর স্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ ৫ লক্ষ ২৮ হাজার টাকা। এ বারে সেই অর্পিতাই হলফনামা দিয়ে কমিশনকে জানিয়েছেন, তাঁর স্থাবর সম্পত্তি ২৮ লক্ষ ২৪ হাজার টাকা। ব্যাঙ্কে গচ্ছিত রয়েছে ২৪ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা। এ ছাড়াও অন্যান্য খাতে ৩ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করেছেন বলে কমিশনকে জানিয়েছেন তিনি।

তাঁর সম্পত্তি বৃদ্ধি নিয়ে প্রকাশ্যে অবশ্য মুখ খোলেননি নাট্যকার। তবে এ নিয়ে অস্বস্তিতে বালুরঘাটের তৃণমূল নেতারাও। এমনিতেই স্থানীয় স্তরে অভিযোগ, গত পাঁচ বছরে নিজের সাংসদ এলাকায় পাঁচ দিন অর্পিতাকে দেখা গিয়েছে কি না সন্দেহ! এ বারও তাঁকে প্রার্থী করা নিয়ে সাময়িক ক্ষোভ তৈরি হয়েছিল। তবে শেষ পর্যন্ত দলীয় নেতৃত্বের নির্দেশে ময়দানে নামেন তৃণমূল নেতারা। প্রসঙ্গত, সিঙ্গুর, নন্দীগ্রাম আন্দোলনের সময় থেকেই অর্পিতা মমতার ঘনিষ্ঠ বৃত্তের মধ্যে চলে আসেন। অনেকেই মনে করেছিলেন ২০১১-র বিধানসভায় দিদি তাঁকে টিকিট দেবেন। কিন্তু তা হয়নি। ১৪-র ভোটে একেবারে দিল্লি পাঠিয়েছিলেন অর্পিতাকে।

অর্পিতার সম্পত্তি বৃদ্ধি নিয়ে তোপ দেগেছে গেরুয়া শিবির। দলের এক নেতার কথায়, “বাংলায় নাটক করে এত পয়সা করা যায় না সবাই জানেন। শুধু তৃণমূল করলেই এটা সম্ভব।” যদিও অনেকে বলছেন, অর্পিতা সাংসদ হিসেবে যা বেতন পেয়েছেন পাঁচ বছর ধরে, তার পরিমাণটাই অনেক। যদি তেমন কোনও খরচ না থাকে তাঁর, তাহলে এই পরিমাণ সম্পত্তি হওয়াটা অস্বাভাবিক নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.