শনিবার সকাল দশটা নাগাদ বুনিয়াদপুরের নারায়ণপুর মাঠে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বিজেপি প্রার্থী সুকান্ত মজুমদারের হয়ে সভা করতে আসছেন। যে খবর গ্রাম গ্রামাঞ্চলে ছড়িয়ে পড়তেই সকাল থেকে একপ্রকার হুড়োহুড়ি লেগে যায়। ঘড়িতে তখন সকাল দশটা তিনটি হেলিকপ্টারের শব্দ পৌঁছেছে গ্রাম থেকে শহর সকল মানুষের কানে। আর তারপরেই মোদিকে এক ঝলক সামনে থেকে দেখবার জন্য ছুটছেন কাতারে কাতারে মানুষ। যার জেরে একদিকে যেমন বালুরঘাট গাজোল ৫১২ জাতীয় সড়ক অবরুদ্ধ হয়ে যায়, তেমনি অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে রায়গঞ্জ বালুরঘাট রাজ্য সড়কও। রাস্তা জুড়ে তখন শুধু চোখে পড়ছে অসংখ্য মানুষের আনাগোনা। সকলেই ছুটছেন সভার দিকে। ভিড় এতটাই উপচে পড়ে যে মাঠের চারপাশে ঘেরা অধিকাংশ ব্যারিকেড তখন ভেঙে গিয়েছে। নরেন্দ্র মোদি সভামঞ্চে প্রবেশ করেছে এই খবর মাইকে পৌঁছাতেই বিভিন্ন এলাকা থেকে ছুটতে শুরু করেছে মানুষ। কিন্তু রাস্তা অবরুদ্ধ হয়ে রয়েছে মানুষের ভিড়ে। কি করে সভাস্থলে পৌঁছাবেন গ্রামাঞ্চল থেকে ছুটে আসা মানুষেরা। বিকল্প কোনো বুদ্ধি না পেয়ে সভা মঞ্চ থেকে কিছুটা দূরে টাঙ্গন নদী অতিক্রম করে পুরুষ থেকে মহিলা সকলের ছুটলেন মোদিকে এক ঝলক দেখবার জন্য। কেউ পার হলেন সাঁতরে কেউবা জল ঠেলে নদী পার হয়ে পৌঁছালেন সভাস্থলে। প্রখর রোদ ও তীব্র গরমেও বিপুল এই জনস্রোত দেখে অবাক হয়েছেন খোদ নরেন্দ্র মোদি ও। তার কথা শুনবার জন্য যে পুরুষ-মহিলারা সমবেত হয়েছেন তাদেরকে এদিন সভা মঞ্চ থেকে তিনি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন। শুধু তাই নয় সকলকে পদ্মফুলে ভোট দেওয়ারও আবেদন জানিয়েছেন এদিনের সভা মঞ্চ থেকে।

বিজেপি জেলা সভাপতি শুভেন্দু সরকার জানিয়েছেন, তারা যে লক্ষ্যমাত্রা ধরেছিলেন তার দ্বিগুণেরও বেশি মানুষ মোদির সভায় সমাগম হয়েছে। যার কারনে মানুষ কোথাও নদী পার হয়ে কোথাও জমির মেঠো পথ পার হয়ে সভায় এসেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.