নীল রায়:

বাতিল হয়েগেল বারুইপুরের শীতাকুন্ডে অমিত শাহ-এর সভা। যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী অনুপম হাজরার সমর্থনে এই সভা করার কথা থাকলেও, অনুমতি না মেলায় বাতিল হল এই সভা। প্রসঙ্গত রাজ্যের যে ৯টি আসনে ভোট বাকী রয়েছে, সেখানে যেনতেন প্রকারেণ বিজেপিকে প্রচারে বাধা দিতে চায় তৃণমূল কংগ্রেস, এমনটাই সূত্রের খবর। নরেন্দ্র মোদী অমিত শাহদের প্রচার সভা বাতিল করতে শীর্ষ নেতারা ময়দানে নামলেও, স্থানীয় স্তরে যাতে কোনওরকম প্রচার বিজেপি নেতারা চালাতে না পারে সেই ব্যবস্থাও করতে বলা হয়েছে। উল্লেখ্য  গত রবিবার যাদবপুর এলাকায় মুকুল রায়ের রোড শো করার কথা থাকলেও শেষ মুহূর্তে অনুমতি বাতিল হয়ে যায়। সেভাবেই প্রচার সভায় দিলীপ ঘোষ, বাবুল সুপ্রিয়, লকেট চট্টোপাধ্যায়, রূপা গঙ্গোপাধ্যায়কেও বাঁধা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বসিরহাট, বারাসাত, দমদম, মথুরাপুর, জয়নগর, যাদবপুর ও ডায়মন্ডহারবারে ছোট ছোট প্রচার সভাও যাতে করতে না পারে বিজেপি, সেই ব্যবস্থা করতে উদ্যোগী হতে বলা হয়েছে স্থানীয় নেতাদের। সেক্ষেত্রে বিভিন্ন এলাকায় যে সমস্ত মাঠে প্রচার সভা করা সম্ভব, সেই সমস্ত মাঠের দখল প্রশাসনিকভাবে নিতে বলা হয়েছে তৃণমূলের স্থানীয় স্তরের নেতাদের। প্রসঙ্গত, বিজেপির বড় নেতা তো দূর অস্ত ছোট নেতারা পথসভা করলেই গ্রামে গ্রামে লোক জড়ো হয়ে যাচ্ছে। যা দৃষ্টি এড়ায়নি তৃণমূল নেতৃত্বের। তাই শেষ ল‌্যপে বিজেপির প্রচার কৌশল রুখতেই বেশি তৎপর তৃণমূল নেতৃত্ব। রবিবার দক্ষিন ২৪ পরগনা জেলার এক প্রচার সভায় মুখ্যমন্ত্রী হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, “ভোট মিটলে ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে বদলা নেয়া হবে”। সেই বদলার প্রস্তুতি যেন বিজেপির প্রচার কৌশল বাতিল করে নেওয়া শুরু করেছে তৃণমূলের বাহিনী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.