রানাঘাট লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ডক্টর মুকুটমণি অধিকারীর মনোনয়ন পত্র দাখিল নিয়ে তৈরি হয়েছে জটিলতা। বিজেপির এই প্রার্থী রাজ্যের সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক। রাজ্যের নিয়ম অনুয়ায়ী সরকারি চাকুরি থাকাকালীন একজন চিকিৎসক কোন রাজনৈতিক দলের জনপ্রতিনিধি হতে পারেন না। তাই রানাঘাট লোকসভার বিজেপি প্রার্থীকে ইস্তফা দিয়ে ভোটে লড়াই করতে হবে। তবে এখনও তাঁর ইস্তফা পত্র গ্রহণ করেনি রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। নিয়ম মত ইস্তফা পত্র গ্রহণ করে স্বাস্থ্য দফতর নো অবজেকশন সার্টিফিকেট না দিলে ভোটে দাঁড়াতে পারবেন না ডক্টর মুকুটমণি অধিকারী। তাই এই কেন্দ্রে তাঁকেই দাঁড় করাতে কমিশনে যাচ্ছে রাজ্য বিজেপি।

দলের সাধারণ সম্পাদক প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করেন, জলপাইগুড়ি আসনেও একই সমস্যা দেখা দিয়েছিল। সেখানেও বিজেপি প্রার্থী ডক্টর জয়ন্ত রায়ের এনওসি দিতে গড়িমসি করছিল রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। তবে কমিশনে যাওয়ার পর সমস্যা মিটে জলপাইগুড়ি আসনে জয়ন্ত রায়ই প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন বলে জানান প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায়। নির্বাচন কমিশনে গেলেই সমস্যার সমাধান হবে বলে আশাবাদী প্রতাপবাবু। তবে মুকুটমণু অধিকারীর সমস্যা নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে যাওয়ারও চিন্তা ভাবনা করছে বিজেপি। কমিশনে ফল না মিললে কাল বিলম্ব ‌না করে আইনি পথে যাবে বিজেপি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.