বাংলাকে ‘ভাতিজা ট্যাক্স’ মুক্ত করার প্রতিশ্রুতি অমিত শাহের

স্টাফ রিপোর্টার, জয়নগর: রাজ্যে করের পরিমান বেড়ছে৷ নাজেহাল বাংলার মানুষ৷ এর মধ্যে অন্যতম ‘ভাতিজা ট্যাক্স’৷ দক্ষিণ ২৪ পরগনার জয়নগর লোকসভায় এদিন প্রচার করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি৷ সেখানেই যুব তৃণমূল সভাপতিকে নিশানা করেন গেরুয়া শিবিরের চাণক্য৷

এদিন অমিত শাহ বলেন, ‘‘বাংলাজুড়ে সিন্ডিকেটরাজ চলছে৷ তার নেতা দিদির ভাইপো৷ তাই করের সঙ্গেই দিতে হচ্ছে ভাইপো ট্যাক্স৷ নাজে

গেরুয়া শিবিরের চাণক্যের দাবি, ‘‘বাংলার জনগণ সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন৷ এবার তৃণমূল হারছেই৷’’ তাঁর সংযোজন, ‘‘মোদীজীর হাত শক্ত করতে এবার এরাজ্য থেকে অনেক বেশি সাংসদ লোকসভায় যাবেন৷’’ প্রত্যয়ের সঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘পশ্চিমবঙ্গ থেকে এবার ২৩-এর বেশি আসন পাবে বিজেপি৷ ২১শে রাজ্যপাটে বদল হবেই৷’’

‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান নিয়ে বিজেপিকে বিঁধতে ছাড়া না তৃণমূল৷ চন্দ্রকোণায় জয় শ্রী রাম শুনেই গাড়ি থেকে মেনে পড়েছিলেন৷ এদিন সভায় অমিত শাহ ‘জয় শ্রী রাম‘ বলে স্লোগান দেন৷ বলেন মঙ্গলবারই কলকাতায় আসবেন তিনি৷ মমতা তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে এদিন অমিক শাহ বলেন, ‘‘হিম্মত থাকলে গ্রেফতার করে দেখান৷’’

এছাড়া, অনুপ্রবেশকারী ইস্যুতেও এদিন তৃণমূল সরকারকে আক্রমণ করেন অমিত শাহ৷ তাঁর দাবি, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্যই বাংলায় অনুপ্রবেশের সংখ্যা বাড়ছে৷ বিজেপি ক্ষমতায় এলে নাগরিকত্ব বিল এনে অনুপ্রবেশকারীদের তাড়ানো হবে। তবে তাঁর আশ্বাস, হিন্দু, জৈন, বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের মানুষদের আশ্রয় দিতে বদ্ধপরিকর বিজেপি সরকার৷

হাল অবস্থা মানুষের৷’’ ভাইপো ট্যাক্স বিলোপে বাংলায় গেরুয়া ব্রিগেডের লোকসভা আসন বৃদ্ধির জন্য মানুষের কাছে দরবার করেন৷

বাংলার রাজনৈতিক হিংসা নিয়েও এদিন সরব ছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি৷ তাঁর কথায়, ‘‘মমতার জমানায় কোনও কারখানা তৈরি হয়নি। তবে, বোমার কারখানা বেড়েছে। বাংলায় হিংসার রাজনীতি হচ্ছে অনবরত৷’’ দক্ষিণ ২৪ পরগনার ডায়মন্ডহারবার থেকেই ভোটে লড়ছেন অভিষেক৷ বারুইপুরের সভা বাতিলের উদাহরণ টেনে অমিত শাহের দাবি, ‘‘আমি সভা করলে ভাইপোর অসুবিধা হবে৷ তাই দিদি সব সভা বতিল করে দিচ্ছেন৷ কিন্তু এভাবে কোনও কিছু আটকে রাখা যাবে না৷’’

গেরুয়া শিবিরের চাণক্যের দাবি, ‘‘বাংলার জনগণ সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন৷ এবার তৃণমূল হারছেই৷’’ তাঁর সংযোজন, ‘‘মোদীজীর হাত শক্ত করতে এবার এরাজ্য থেকে অনেক বেশি সাংসদ লোকসভায় যাবেন৷’’ প্রত্যয়ের সঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘পশ্চিমবঙ্গ থেকে এবার ২৩-এর বেশি আসন পাবে বিজেপি৷ ২১শে রাজ্যপাটে বদল হবেই৷’’

‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান নিয়ে বিজেপিকে বিঁধতে ছাড়া না তৃণমূল৷ চন্দ্রকোণায় জয় শ্রী রাম শুনেই গাড়ি থেকে মেনে পড়েছিলেন৷ এদিন সভায় অমিত শাহ ‘জয় শ্রী রাম‘ বলে স্লোগান দেন৷ বলেন মঙ্গলবারই কলকাতায় আসবেন তিনি৷ মমতা তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে এদিন অমিক শাহ বলেন, ‘‘হিম্মত থাকলে গ্রেফতার করে দেখান৷’’

এছাড়া, অনুপ্রবেশকারী ইস্যুতেও এদিন তৃণমূল সরকারকে আক্রমণ করেন অমিত শাহ৷ তাঁর দাবি, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্যই বাংলায় অনুপ্রবেশের সংখ্যা বাড়ছে৷ বিজেপি ক্ষমতায় এলে নাগরিকত্ব বিল এনে অনুপ্রবেশকারীদের তাড়ানো হবে। তবে তাঁর আশ্বাস, হিন্দু, জৈন, বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের মানুষদের আশ্রয় দিতে বদ্ধপরিকর বিজেপি সরকার৷

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.