জেনে নিন আপনার স্মার্টফোনটি হঠাৎ জলে পড়ে গেলে কি করবেন

আমরা এখন স্মার্টফোন ছাড়া এখন একদমই চলতে পারি না। তাই খেতে বসে হোক, বা ঘরে কোনও কাজ করতে করতে কানে ফোন রাখা বা সোশ্যাল সাইটে নজর রাখা এখন আমাদের একটা দৈনন্দিন কাজ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এমনকি বাইক বা স্কুটি চালাতে চালাতেও দেখা যায় যে কানে মোবাইল দিয়ে গাড়ি চালাচ্ছে। যেটা সবচেয়ে অদ্ভুত লাগে! এতে দেখা যায় অনেক সময় আমাদের সাধের স্মার্টফোনটি হাত থেকে জলে পড়ে অকালে নষ্ট হয়ে যায়। তাই জেনে নিন হঠাৎ যদি হাত থেকে মোবাইল জলে পড়ে যায় তাহলে কি করবেন?

১. সার্ভিস সেন্টারে মিথ্যা বলবেন না: ধরা যাক, আপনার স্মার্টফোনটি ওয়ার‍্যান্টি পিরিয়ডের মধ্যেই রয়েছে। সেক্ষেত্রে নির্মাতা সংস্থার সার্ভিস সেন্টারে গিয়ে আপনি ফোনটি বিনামূল্যে সারিয়ে নিতেই পারেন। তবে কোন কোন ক্ষেত্রে ড্যামেজ রিপেয়ার হবে, সেটা আগে থেকেই স্পষ্টভাবে জেনে রাখুন। সার্ভিস সেন্টারে গিয়ে মিথ্যা বলে লাভ নেই। প্রতিটি স্মার্টফোনের অন্দরে ‘ইমারসন সেন্সর’ থাকে। কোনও তরলের সংস্পর্শে এলেই তার রং পালটে যায়। আপনার ফোন যদি হাত ফসকে জলে পড়ে যায়, অথচ আপনি সার্ভিস সেন্টারে গিয়ে সে কথা অস্বীকার করেন, তাহলে কিন্তু লাভের লাভ কিছুই হবে না।

২. যত দ্রুত সম্ভব মুছুন ও অফ করুন: স্মার্টফোন জল পড়ে গেলে যত দ্রুত সম্ভব সেখান থেকে তুলে ফোনটি একটি পরিষ্কার নরম কাপড় দিয়ে মুছুন ও সুইচ অফ করে রাখুন। কোনও হেডফোন বা ইউএসবি লাগানো থাকলে অবশ্যই খুলে রাখুন। পারলে ফোনটি একটি শুকনো তোয়ালেতে জড়িয়ে রাখুন। সেক্ষেত্রে অতিরিক্ত জল তোয়ালেটি টেনে নেবে।

৩. চালের বস্তার ভিতরে রাখুন: খুব ভাল হয় যদি জল থেকে তুলেই স্মার্টফোনটি ২৪-৪৮ ঘণ্টা চালের বস্তার ভিতর রাখতে পারেন। চাল অতিরিক্ত আর্দ্রতা শুষে নেয়। তবে সাধারণত চালের বস্তায় প্রচুর ধুলো থাকে। সেটাও স্মার্টফোনের জন্য খুব একটা সুবিধার নয়। তাই খুব বেশিক্ষণ না রাখাই ভাল।

৪. হেয়ার-ড্রায়ার ব্যবহার করবেন না: ভেজা চুল শুকোতে বাড়িতে যে হেয়ার-ড্রায়ার থাকে, সেটা ভুলেও যেন ফোনের ভিতর জল ঢুকে গেলে শুকোনোর জন্য ব্যবহার করবেন না। কারণ, হেয়ার-ড্রায়ার থেকে যে গরম হাওয়া বেরোয়, তা আপনার ফোনের ইলেকট্রনিক যন্ত্রাংশের ক্ষতি করতে পারে। অনেকে ফোনটি ওভেনের পাশে রেখেও শুকোনোর চেষ্টা করেন। এই প্রবণতাও কিন্তু বিপজ্জনক।

৫. নোনা জলে পড়লে সর্বনাশ: পরিষ্কার জলে ফোন পড়ে গেলে ও তার ভিতরে জল ঢুকলে তবু স্মার্টফোনটি ঠিক হওয়ার কিছুটা আশা থাকে। কিন্তু সমুদ্রের ধারে বেড়াতে গিয়ে হাত ফসকে নোনা জলে ফোন পড়ে গেলে সেটা ঠিক হওয়ার আশা প্রায় থাকে না বললেই চলে। সেক্ষেত্রে ফোনটি সমুদ্র থেকে তুলে পরিষ্কার জলে ধুয়ে ফেলার চেষ্টা করবেন না যেন।

৬. ডেটা ব্যাক-আপ নিয়ে রাখুন: ফোন ফিরে না পেলেও অনেকের কাছে ওই ফোনে সংরক্ষিত ডেটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়। তাই ফোনটি অবিলম্বে জল থেকে তুলে ‘অন’ করতে পারলেই আগে ডেটা ‘ব্যাক-আপ’ নিয়ে রাখুন। হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট, ছবি, ব্যাঙ্কিং তথ্য, কন্ট্যাক্টস-সব কিছুরই ব্যাক-আপ আগে থেকে নিয়ে রাখা সম্ভব।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.