একদিকে হাফিজ সঈদের সংগঠনের উপর কোপ বসিয়েছে পাক সরকার। তার মধ্যে রাষ্ট্র সংঘেও ধাক্কা খেল ওই শীর্ষ জঙ্গি নেতা। নিষিদ্ধ জঙ্গিদের তালিকায় মুম্বই হামলার মাস্টারমাইন্ড তথা জামাত-উদ-দাওয়া প্রধান হাফিজ সৈয়দের নামটি মুছে দেওয়া আবেদন জানানো হয়েছিল। সেই আবেদন খারিজ হয়ে গেল বলে বৃহস্পতিবার।

রাষ্ট্রসংঘে ১২৬৭ অনুমোদন কমিটির কাছে পুলওয়ামা জঙ্গি হানার পর জইশ-ই-মহম্মদ প্রধান মাসুদ আজহারের নাম ওই তালিকায় রাখার জন্য আবেদন আসার পর হাফিজ সঈদকে নিয়েও এই নতুন আবেদন আসে। প্রসঙ্গত, পুলওয়ামা জঙ্গি হানায় ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ানের শহিদ হওয়ার ঘটনার দায় স্বীকার করে নিয়েছিল পাক জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদ।

সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, জামাত-উদ-দাওয়া ছাড়াও জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তইবা’র প্রতিষ্ঠাতা হাফিজ সৈয়দের সম্বন্ধে অত্যন্ত গোপন ও পূর্ণাঙ্গ তথ্য ভারত রাষ্ট্রপুঞ্জের কাছে পেশ করার পরই তারা এই সিদ্ধান্ত নেয়।

প্রসঙ্গত, ২০০৮ সালের ১০ ডিসেম্বর মুম্বাই হানার মাসখানেকের মধ্যেই হাফিজ সৈয়দকে নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করে রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদ। ২০০৮ সালের মুম্বাই হানায় প্রাণ হারিয়েছিলেন মোট ১৬৬ জন।

২০১৭ সালে লাহোরের মির্জা ও মির্জা আইনি সংস্থার মাধ্যমে হাফিজ সৈয়দের পক্ষ থেকে একটি আবেদন করা হয় রাষ্ট্রপুঞ্জের কাছে, তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা তুলে দেওয়ার জন্য। ওই সময় পাকিস্তানেও গৃহবন্দি ছিল হাফিজ সৈয়দ। হাফিজ সৈয়দের আবেদনের তীব্র বিরোধিতা করে ভারত সহ আমেরিকা ও একাধিক দেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.