বন্ধুকে হত্যা করার অপরাধে, শাস্তি হিসেবে দুই ভারতীয় যুবকের মাথা কেটে ফেলল সৌদি সরকার!

প্রায় দু’মাস আগ ঘটে যাওয়া এই চরম নৃশংস ঘটনা সম্পর্কে এত দিন কিছুই জানতে পারেনি কেউ! এমনকী অন্ধকারে ছিল ভারতীয় দূতাবাসও। শুধু তা-ই নয়। ২৮ ফেব্রুয়ারি ঘটা এই ‘শাস্তি প্রক্রিয়া’ নিয়ে সৌদি সরকার কোনও রকম আলোচনাতেও রাজি নয়। রিয়াধে অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাসকেও কিছু জানাতে রাজি নয় তারা। এমনকী, মাথা কেটে ফেলা ওই দুই ভারতীয় যুবকের মৃতদেহও তাঁদের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়েছে সৌদি প্রশাসনের তরফে৷ ফলে এই বিষয়টি ঘিরে কূটনৈতিক মহলে জটিলতা তুঙ্গে

সোমবার বিদেশ মন্ত্রকের তরফে সত্যেন্দ্র কুমার ও হরজিৎ সিং নামের দুই ভারতীয়র মৃত্যুসংবাদ জানানো হয় তাঁদের পরিবারের লোকদের।

সৌদি সূত্রে জানা গিয়েছে, ২০১৫-তে সৌদির একটি দোকান থেকে বেশ কিছু টাকা লুট করেন তিন ভারতীয় যুবক সত্যেন্দ্র কুমার, হরজিৎ সিং ও আরিফ ইমামউদ্দিন৷ অভিযোগ, সেই লুটের টাকার ভাগাভাগি নিয়ে নিজেদের মধ্যে বচসায় জড়িয়ে পড়েন তাঁরা৷ সৌদি প্রশাসনের দাবি, বচসার জেরেই ইমামউদ্দিনকে খুন করে সত্যেন্দ্র কুমার ও হরজিৎ সিং৷ ঘটনার কয়েক দিন পরে, ২০১৫-র ৯ ডিসেম্বর সৌদি পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয় অভিযুক্ত সত্যেন্দ্র কুমার ও হরজিৎ সিং৷ তাঁরা জেরায় খুনের কথা স্বীকার করলে তাঁদের বিরুদ্ধে খুনের মামলা রুজু হয়৷

বিদেশ মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, অভিযুক্ত সত্যন্দ্র ও হরজিৎকে জেলে পাঠানো হয়৷ এ বিষয়টি কিন্তু ভারতীয় দূতাবাস জানত। এমনকী তাঁদের দেখতে মাঝে-মধ্যেই রিয়াধ জেলে যেতেন ভারতীয় দূতাবাসের আধিকারিকরাও৷ মামলার গতিপ্রকৃতি সম্পর্কেও খোঁজ-খবরও রাখতেন তাঁরা৷

কিন্তু সম্প্রতি সেই আধিকারিকেরা হঠাৎ জানতে পারেন, দুই অভিযুক্ত যুবকেরই শিরশ্ছেদ করে শাস্তি দিয়েছে সৌদি সরকার! চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারির সেই শাস্তি দেওয়া হয়েছে৷ তবে এই বিষয়ে সে দেশে অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাসকে কোনও তথ্যই জানানো হয়নি৷ এমনকী, সৌদি সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, সে দেশের আইনানুযায়ী ওই দুই অপরাধীর দেহাবশেষও দেওয়া হবে না ভারতে বসবাসকারী তাঁদের পরিবারকে৷

বিদেশ মন্ত্রকের তরফে অবশ্য এ বিষয়ে সৌদিকে পাল্টা চাপ দেওয়া হচ্ছে বলে সূত্রের খবর। দূতাবাসকে না জানিয়ে এ ভাবে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া যায় না বলেও জানানো হয়েছে তাদের। দেহ ফেরানোর জন্যও বলা হয়েছে। কিন্তু কোনও ইতিবাচক উত্তর এখনও সে দেশের তরফে পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.