পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত হলেও আতঙ্ক কাটছে না সীমান্তে। গত কয়েকদিন ধরে যেভাবে ভারতীয় সেনা ছাউনি টার্গেট করে পাকিস্তান শেলিং করেছে তাতে সতর্ক ভারত। বিশেষ করে নতুন করে পাকিস্তানের যে হামলার কড়া জবাব দিতে পাকিস্তান সীমান্তে মোতায়েন জওয়ানদের সতর্ক থাকতে নির্দেশ। শুধু তাই নয়, যে কোনও পরিস্থিতির মোকাবিলা করার জন্য তৈরি থাকার নির্দেশ দিয়েছেন সেনাপ্রধান জেনারেল বিপীন রাওয়াত। শুধু তাই নয়, সেনা আধিকারিকদের বায়ুসেনার সঙ্গে যোগাযোগ রাখারও নির্দেশ দিয়েছেন।

অন্যদিকে, বায়ুসেনার পক্ষ থেকেও জানানো হয়েছে, পাকিস্তানের দিক থেকে যে কোনও আক্রমণের মোকাবিলা করার জন্য উচ্চ পর্যায়ের প্রস্তুতি চলছে। ওমান, ইরান, আফগানিস্তান ও চিনের সঙ্গে আকাশপথে সংযোগ চালু করেছে পাকিস্তান। ভারত-পাক আকাশপথে ১১টি যাতায়াতের রাস্তা এখনও বন্ধ। পাকিস্তানের আগ্রাসন চিহ্নিত ও প্রতিহত করার জন্য আকাশপথে কড়া নজরদারি চালাচ্ছে বায়ুসেনা।

পাকিস্তানে যে কোনও মুহূর্তে ভয়ঙ্কর কিছু বেঁধে যেতে পারে, এমনটাই আশঙ্কা সামরিক পর্যবেক্ষকদের। এই অবস্থায় সীমান্তে প্রহরা থাকা জওয়ানদের মনোবল বাড়াতে সম্প্রতি জম্মু ও কাশ্মীর ও রাজস্থানে ভারত-পাক সীমান্ত পরিদর্শনে গিয়েছেন সেনাপ্রধান। তখনই তিনি নিরাপত্তাব্যবস্থা ও যে কোনও পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা করেন সেখানকার সেনা আধিকারিকদের সঙ্গে।

এই বিষয়ে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ‘ভারতীয় সেনাবাহিনী যে পাকিস্তানের সবরকম অসাধু প্রচেষ্টার মোকাবিলা করতে সক্ষম, সে বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী সেনাপ্রধান। তিনি বাহিনীর মানসিক জোরের প্রশংসা করেছেন এবং বায়ুসেনার সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলার নির্দেশ দিয়েছেন।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.