পাপ্পু এখন আমুল বেবি। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে কটাক্ষ করে পাপ্পু নাম দিয়েছিলেন গেরুয়া শিবিরের নেতৃত্ব। তবে লোকসভা ভোটের আগে তার আবার নতুন নামকরণ হয়েছে। কেরলের বাম নেতা ভি এস অচ্যুতানন্দ রাহুল গান্ধীকে আমুল বেবি বলে ডেকেছেন।

দেশজুড়ে গেরুয়া ঝড় আটকাতে বিজেপি বিরোধী জোট গঠনের ক্ষেত্রে বাম-কংগ্রেস কাছাকাছি এসেছিল। তবে প্রথম থেকেই ভোটের আগে জোটে যেতে নারাজ ছিল বামেরা। কিন্তু জোট না হলেও কংগ্রেসের বিরুদ্ধে খুব বেশি বিরোধিতার সুর চড়াতে দেখা যায়নি বাম নেতাদের। কিন্তু পরিস্থিতিটা পাল্টে যায় তখনই, যখন রাহুল গান্ধীর নাম ঘোষণা হয় কেরলের ওয়ানাড কেন্দ্র থেকে। বাম কংগ্রেসের শীতল সম্পর্কে বয়ে যায় ঝড়ো হাওয়া। কারণ একটাই আমেঠির সঙ্গে কেরল থেকেও কংগ্রেসের প্রার্থী হচ্ছেন রাহুল গান্ধী।

২০১৪ লোকসভা নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী মোদী দুই লোকসভা কেন্দ্র থেকে লড়েছিলেন এবং জয়ী হয়েছিলেন। এবার মোদীকে অনুসরণ করে আমেঠি ছাড়াও দক্ষিণ ভারতের আরো একটি লোকসভা কেন্দ্র থেকে লড়াই করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি। কিন্তু কেরলের ওয়ানড থেকে রাহুল গান্ধীর প্রার্থী হওয়াকে কটাক্ষ করেছেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ভিএস অচ্যুতানন্দ। তিনি দাবি করেছেন রাজনৈতিক অজ্ঞতা থেকেই এই দুই কেন্দ্র থেকে প্রার্থী করা হয়েছে কংগ্রেস সভাপতিকে। একই সঙ্গে রাহুল গান্ধীকে আমূল বেবি বলেও কটাক্ষ করেন তিনি। স্পষ্ট ভাষাতেই জানিয়ে দেন কংগ্রেস বামেদের বড় শত্রু।

এর আগেও ২০১১ সালেও ঠিক একই ভাষায় রাহুল গাঁধীকে কটাক্ষ করেছিলেন অচ্যুতানন্দ। কংগ্রেসের উদ্দেশ্যে বামেরা প্রশ্ন তুলেছেন সারা ভারতবর্ষে এত কেন্দ্র থাকতে কেরলকে কেন বাঁচলেন কংগ্রেস সভাপতি, তাহলে কি বিজেপিকে ছেড়ে বামেদের প্রধান টার্গেট করছে কংগ্রেস?

কেরলের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় বলেন, খুব ভালো হতো যদি রাহুল বিজেপির বিরুদ্ধে প্রার্থী হতেন। কিন্তু ওয়ানড থেকে প্রার্থী হয়ে এটাই প্রমাণ করা হয় যে কংগ্রেস বামেদেরকেই তাদের মূল প্রতিপক্ষ বলে মনে করে। সিপিএমের প্রাক্তন সাধারন সম্পাদক প্রকাশ কারাতও বিজয়নের সঙ্গে একমত। তিনি জানান জাতীয় স্তরে কংগ্রেস বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ডাক দিয়েছে। আবার অন্যদিকে বিভিন্ন রাজ্যে তারাই বিজেপি বিরোধী দলগুলির বিরুদ্ধে লড়ছে। আর এই কারণেই জাতীয় স্তরে ভুগতে হবে কংগ্রেসকে। বামেদের বিরুদ্ধে কংগ্রেস সভাপতির নিজে দাঁড়াচ্ছেন এর অর্থ তো এটাই যে বামেদের টার্গেট করেছে কংগ্রেস। তবে বামেরাও তার বিরুদ্ধে লড়বে এবং ওয়ানড কেন্দ্র থেকে কংগ্রেস সভাপতিকে গোহারা হারাবে।

কিন্তু বাম ও কংগ্রেসের বিরোধের মাঝে নিজেদের সুবিধা খোঁজার চেষ্টা করছে বিজেপি কেরলে। এই প্রসঙ্গে অমিত শাহ বলেছেন বাম কংগ্রেসের এই বিরোধের মাঝে এনডিএ জোটকেই বিকল্প হিসেবে তুলে আনবে কেরলের সাধারণ মানুষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.