এলসিএ তেজাসের নতুন নৌ সংস্করণের চূড়ান্ত পরীক্ষামূলক উপকূল ভিত্তিক উড়ান শুরু হতে চলেছে গোয়ায়

গোয়ার উপকূল ভিত্তিক পরীক্ষা সুবিধাকেন্দ্রে (এসবিটিএফ) ( Shore Based Test Facility (SBTF))  একটি লাইট কমব্যাট বিমানের (এলসিএ-এন)  নৌসেনা উপযোগী প্রশিক্ষক সংস্করণের প্রশিক্ষকেরা চূড়ান্ত পর্যায়ের ব্যাপক পরীক্ষা চালাচ্ছে বলে জানিয়েছে  টাইমস অব ইন্ডিয়া।

এরোনটিকাল ডেভলপমেন্টাল এজেন্সি (এডিএ) দ্বারা তৈরি দুআসনের  নৌবাহিনী সংস্করণটি ২৪ এপ্রিল বেঙ্গলুরুতে উড়েছিল। এই নতুন সংস্করণটিতে  আরেস্টার হুক এবং পাইলট নিয়ন্ত্রিত  LEVCON ফ্ল্যাপগুলির মতো নতুন পরিবর্তনে সজ্জিত করা হয়েছে।  এর ফলে  অবতরণের সময় গতি কমানো  এবং ল্যান্ডিং দূরত্ব ২০০ মিটার পর্যন্ত বজায় রাখা যাবে।

প্রথম এলসিএ সংস্করণটি আকাশে ওড়ার দুই বছর পর, মাঝারি ওজনের  যুদ্ধ বিমান  মিগ -২৯ এর পরিপূরক হিসাবে ২০০৩ সালে এলসিএ-এন প্রকল্প শুরু হয়েছিল। । নৌসেনা উপযোগী ন্যাভাল প্রোটোটাইপ ১ প্রকল্প চালু করা হয়েছিল ২০১০ সালে ।

ভারতীয় নৌবাহিনী এলসিএ-এন এর মার্ক -১ এবং মার্ক-২ উভয় রূপেই ভারী ওজন ও বিদ্যুৎ সম্পর্কিত সমস্যাগুলির উপর দুই বছর আগে  তাদের সঙ্কোচ প্রকাশ করে, তার পরিবর্তে একটি বিদেশী যুদ্ধ জেট নির্বাচনের জন্য ইঙ্গিত দিয়েছিল।

নৌবাহিনী প্রায় ৫০,০০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নৌযান কিনতে পারে বলে জানা গেছে। এ কারণে F/A-18 এবং রাফাল-এম এর মত জেট নির্মাতাদের  কাছ থেকে প্রস্তাবের অনুরোধ চাইতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.