ভারত পেলো প্রথম স্বদেশী ‘বোফোর্স”, এর মারক ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে যেকোনো যুদ্ধেই জয় লাভ করা যাবে

দেশে বানানো সম্পূর্ণ ভারতীয় প্রযুক্তিতে তৈরি ধনুশ তোপ সোমবার সেনায় নিযুক্ত হয়েছে। ভারতীয় সেনার শক্তি বাড়িয়ে তোলা এই ধনুশ তোপকে দেশী বোফোর্সও বলা হয়। ধনুশ কামান এতটাই শক্তিশালী যে, ভারত এর শক্তি কাজে লাগিয়ে বিশ্বের যেকোন যুদ্ধ জিততে পারবে। ভারতীয় সেনায় ৪১৪ টি  স্বদেশী কামান নিযুক্ত হতে চলেছে। যার মধ্যে ১১৪ টি কামান সোমবার ভারতীয় সেনার হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। এই কামন গুলোকে দুর্গম মরুভূমির সাথে সাথে পাহাড়েও সহজেই মোতায়েন করা যেতে পারে।

ধনুশ কামান ভারতের প্রথম বেশি দূরত্বের কামান। গত বছরের জুন মাসে রাজস্থানের পোখরানে এই কামানের সর্বশেষ পরীক্ষণ করা হয়েছিল।

ধনুশ ১৫৫এমএম x ৪৫ এমএম ক্যালিবারের কামান। এর স্ট্রাইক রেঞ্জ ৩৮ কিমি, আর এর ৮১ শতাংশ যন্ত্রাংশ ভারতেই তৈরি হয়েছে। সিকিম আর লেহ এর ঠান্ডা, উড়িষ্যার গরম এবং আদ্রতা আর রাজস্থানের চরম গরম। সব আবহাওয়াতেই এই কামানের পরীক্ষণ করা হয়েছে। আর সব যায়গায় সফল ও হয়েছে।

এই কামানের সাহায্যে রাতের অন্ধকারেও সঠিক নিশানা লাগানো যাবে, আর এই কামানে এক মিনিটে ছয়টি তোপ দাগা যাবে। প্রথমে এই কামানকে ২০১৭ সালেই সেনাতে নিযুক্ত করার কথা ছিল, কিন্তু কিছু ত্রুটির জন্য এই কামান সেনার হাতে তুলে দিতে সময় লেগে যায়।

সূত্র অনুযায়ী, এই কামানে ১৪.৫০ কোটি টাকা খরচ আসে। আর আমেরিকার আলট্রা লাইট Howitzer কামানের দাম ৩৩ কোটি টাকা। সেনা ওই কামানটিকেও ট্রায়ালের জন্য নিয়েছিল। ধনুশ তোপের প্রথম প্রোটোটাইপ ২০১৪ সালে তৈরি হয়েছিল আর তারপর অনেকবারই এর প্রোটোটাইপে বদল আনা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.