কৃষক আন্দোলনের মুশিক প্রসব হবে

দিল্লির রাজপথে দুমাস ধরে চলা কৃষক আন্দোলনের শেষের শুরু হল। 15ই ফেব্রুয়ারির মধ্যেই কৃষক আন্দোলনের মুশিক প্রসব হবে, শাহিনবাগ আন্দোলনের মতো! অপারেশন থিয়েটার তৈরী করা হয়ে গেছে এখন ডেলিভারির প্রস্তুতি চলছে। একটু অপেক্ষা করুন যথা সময়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক থেকে মিষ্টি বিতরণ হবে! যতই কংগ্রেস, কমিউনিস্ট, খালিস্তানি ও কাটা পোনারা মিলে ট্রাক্টর ও বাইক নিয়ে দিল্লির রাজপথ আটকে কেন্দ্রের মোদী সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন শুরু করুক না কেন, সেই আন্দোলনের মধ্যে অশরীরী সব ভূত ঢোকানোর কাজ এতদিনে সম্পন্ন হয়েছে। এরপর সেইসব কৃষক সাজা নেতারা নন, অশরীরী ভূতেরাই আন্দোলনের গতি প্রকৃতি ঠিক করবে ও নিয়ন্ত্রণ করবে!!

কংগ্রেসের অমরিন্দর সিংহের পাঞ্জাব সরকার ও আম আদমি পার্টির কেজরিবালের দিল্লি সরকারের মুখ সারা দেশের কাছে পুড়তে চলছে, এবং সত্যিই পুড়ুক তা চাইছে কেন্দ্র সরকার। কারণ এই দুই রাজ্য সরকারই প্রধানত এই কৃষক আন্দোলনের মূলধন, কাঁচামাল আর শক্তির যোগান দিচ্ছে।

এরপর যা হবে তার জন্য অমরিন্দর সিংহ আর অরবিন্দ কেজরিবাল দায়ী থাকবে। এবং তার ফলস্বরূপ পরবর্তীতে কেন্দ্রের বিজেপির মোদী সরকার, কৃষক আন্দোলন ও আন্দোলনকারীদের বিষয়ে কোনো বড় সিদ্ধান্ত ও কঠোর দৃষ্টান্ত মূলক পদক্ষেপ নিতে পারবে। আর তার জন্য সাধারণ জনগণ ও গরীব কৃষকদের সমর্থন পাবে।

ফেসবুকে যারা কৃষক সাজা জমিদার জোতদারদের হয়ে সাওয়াল করছেন তারা মোদী আর শাহকে চিনতে ভুল করেছেন। ঠান্ডা মাথার স্থিতধী এই দুই পোড় খাওয়া ধুরন্ধর ঝানু দূরদৃষ্টি সম্পন্ন কৌশলী রাজনীতিবিদ ও সাথে ভারতের জেমসবন্ড এনএসএ অজিত ডোভাল এই ত্রয়ী পুরো আন্দোলনের উপর নিজেদের নিয়ন্ত্রণ বজায় রেখে চলেছেন তাদের বিভিন্ন হিডেন সোর্স ও ভূতুড়ে অশরীরী কলাকুশলী দ্বারা। বাম কংগ্রেস ধরতে পারবে না তাদের তৈরী কেন্দ্র বিরোধী কৃষক আন্দোলন কখন কেন্দ্রের হাতে পুতুল নাচে পরিণত হয়েছে!

আপনারা উচুদরের ডাক্তার, মাষ্টার, উকিল হতেই পারেন ওটাতে আপনারা দিনের পর দিন প্র্যাকটিস করে ঘষতে ঘষতে এক্সপার্টাইজ হাসিল করেছেন কিন্তু রাজনীতি করা আপনাদের সাবজেক্টেই না। তাই ওটা আপনারা কিছুই জানেন না। তাই যারা রাজনীতি করেন, তারা আপনার মতো হয়তো উচুদরের ডাক্তার, মাষ্টার, উকিল নয়, কিন্ত রাজনীতি করাটাই তাদের নেশা, পেশা ও ধর্ম। আর তাই ঘষতে ঘষতে রাজনৈতিক সাবজেক্টে তারা মাস্টার হয়েছেন! রাজনীতিবিদরা যেমন রাস্তায় নেমে আন্দোলন করতে জানেন তেমনি বিরোধীদের রাস্তার আন্দোলনের কি করে স্যাটা ভাঙতে হয় সেটাও আপনাদের থেকে ভালই জানেন!! তারা যেমন Politics জানেন তেমনি Poly-TRICKSও করতে জানেন! আপনি তো কোনো দিনও রাস্তায় নেমে কোনো আন্দোলনও করেন নি, টায়ার পোড়ান নি, বিরোধীদের দিকে ইট মারেন নি, নিজেদের দিকেও পাটকেল মারেননি!! তাই চুপ করে এবার আন্দোলনের নামে পুতুলনাচ দেখতে থাকুন। আর ভরসা রাখুন মোদী, শাহ ও ডোভালের মন মস্তিষ্কের উপর। মনে রাখবেন এই ত্রয়ীর হাতেই এখন কৃষক আন্দোলন নামক পুতুলনাচের সুতো বাঁধা আছে।।

সুব্রতসাহারায়

SubrataSahaRoy

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.