বালাকোট এয়ার স্ট্রাইকের পর ভয়ভীত পাকিস্তানে বিমান সেবা এখনো সামান্য হয়নি। পাকিস্তান আবারও বাহাবলপুর, রহীম খান আর শিয়ালকোট বিমানবন্দরকে বন্ধ করে দিয়েছে। পাকিস্তানের সিভিল এভিয়েশন অথরিটি CAA এই ঘোষণা করেছে। পাকিস্তানের সংবাদ মাধ্যম ‘ডন” CAA এর থেকে তথ্য নিয়ে জানায়, দেশের পূর্বের দিকের এয়ারপোর্ট গুলোকে তখনই খোলা হবে, যখন আধিকারিকরা সিকিউরিটি ক্লিয়ারেন্স দেবে।

২৬শে জানুয়ারি ভারত দ্বারা করা পাকিস্তানের বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইক করার পর থেকেই চরম আতঙ্কে ভুগছে পাকিস্তান। ২৭ ফেব্রুয়ারির পর থেকেই শিয়ালকোট, বহবলপুর সমেত ৭ টি বিমান বন্দরকে ১০ দিন ধরে বন্ধ করে রেখেছে। বিমান বন্দর বন্ধ হওয়ার কারণে পাকিস্তানের কয়েকশ কটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। অনেক ফ্লাইট সার্ভিস বন্ধ করা হয়েছে তো অনেক ফ্লাইটকে ডাইভার্ট করা হয়েছে।

ডন এর অনুসারে, আধিকারিকরা জানিয়েছে শিয়ালকোট, রহীম খান, ডিজি খান, সুকুর, সুকার্দু আর গিলগিট বিমানবন্দর গুলোকে সুরক্ষার জন্য বন্ধ রাখা হয়েছে। এগুলোর মধ্যে অনেক এয়ারপোর্টই ভারতীয় সীমার সাথে লাগোয়া। যদিও করাচি, ইসলামাবাদ, লাহোর আর পেশাওয়ার এর মত বিমানবন্দর গত ৫ই মার্চ থেকে চালু করেছে পাকিস্তান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.