‘মেরুদণ্ডহীনরা গর্তে লুকিয়ে’ থাকে, কদর্য আক্রমণ করা নেটিজেনদের ‘থাপ্পড়’ বিরাটের

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে হারের পর ভারতীয় খেলোয়াড়দের উদ্দেশে ধেয়ে এসেছে কটাক্ষ। সোশ্যাল মিডিয়ার একাংশ কদর্য ভাষায় তাঁদের আক্রমণ শানিয়েছে। তা নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া দিলেন ভারতীয় পুরুষ ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ওই নেটিজেনদের ‘একগুচ্ছ মেরুদণ্ডহীন লোক’ হিসেবে চিহ্নিত করলেন।

রবিবার নিউজিল্যান্ডে ম্যাচের আগে সাংবাদিক বৈঠকে বিরাট বলেন, ‘কেন আমরাই মাঠে নেমে খেলছি এবং সোশ্যাল মিডিয়ার একগুচ্ছ মেরুদণ্ডহীন লোক (সেটা পারছেন না), তার একটি যথার্থ কারণ আছে। যাঁদের কোনও ব্যক্তির মুখোমুখি হয়ে কথা বলার সাহস নেই। নিজেদের চেনা জায়গায় লুকিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় লোকের দিকে ধেয়ে আসেন। এটা আজকের দুনিয়ার বিনোদনের মাধ্যম হয়ে দাঁড়িয়েছে। যা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক এনং দুঃখজনক। কোনও মানুষের মানসিকতা এটার থেকে আর নীচে নামতে পারে না। এভাবেই আমি এই লোকগুলোকে দেখি।’ 

গত রবিবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ১০ উইকেটে হেরে যায়। সেই ম্যাচের পরই মহম্মদ শামি-সহ ভারতীয় দলের একাধিক তারকাকে কটূক্তি করা হয়। বিশেষত শামির উদ্দেশে চূড়ান্ত কদর্য ভাষা ব্যবহার করে সোশ্যাল মিডিয়ার একাংশ। যদিও শামিকে নিয়ে আবার একটি ভিন্ন তত্ত্ব উঠে এসেছে।

সেই প্রসঙ্গে শনিবার বিরাট বলেন, ‘ব্যক্তিগতভাবে আমরা জানি যে মাঠে আমাদের কী করতে হবে। চারিত্রিক এবং মানসিক দৃঢ়তা আছে আমাদের। আমরা মাঠে যা করছি, তা দূরদূরান্ত থেকেও এইসব লোকগুলো ভাবতে পারবেন না। এটা (মাঠে নেমে খেলা এবং ভারতের প্রতিনিধিত্ব করার) সাহস এবং মেরুদণ্ড নেই ওঁদের। এভাবেই আমি বিষয়টা দেখি। আর বাইরে যে নাটক তৈরি হয়েছে, তা পুরোপুরি লোকেদের হতাশা, আত্মবিশ্বাসের অভাব, সহানুভূতির অভাবেব কারণে হয়েছে। তাই ওঁরা লোকেদের দিকে ধেয়ে আসতে ভালোবাসেন। দল হিসেবে আমরা জানি যে কীভাবে এককাট্টা হয়ে থাকতে হবে, কীভাবে প্রত্যেককে ভরসা জোগাতে হবে, কীভাবে নিজেদের শক্তিতে মনোযোগ দিতে হবে। ভারত কোনও ম্যাচ হারতে পারে না বলে বাইরের লোকজন কী ভাবছে, তা নিয়ে আমরা মাথা ঘামাই না। আমি খেলাধুলো করি। আমি জানি, সেই খেলাধুলো কেমন হয়। বাইরের লোকজন কী ভাবেন, তাতে আমাদের দলের কোনও যায়ে আসে না। আমরা কখনও সেটা মনোযোগ দিইনি। ভবিষ্যতেও সেটা নিয়ে আমরা মাথা ঘামাব না। আমি আগেও বলেছি যে আন্তর্জাতিক স্তরে খেলার বিষয়টি আলাদা।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.