মমতা একবার কংগ্রেসের ডালে দোল খান,একবার বিজেপির ডালে: সুজাতা খাঁ

 আদালতের নির্দেশে বাঁকুড়া জেলায় প্রবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সৌমিত্র খাঁ এর। তাই তার অনুপস্থিতিতে বাম-তৃণমূলকে প্রচারের ময়দানে এক ইঞ্চিও জমি ছাড়তে রাজী নয় বিজেপি। সেকারণেই এই ‘বিদায়ী’ সাংসদের জেলায় অনুপস্থিতিতে রাজনীতির ময়দানে অবতীর্ণ হলেন তার স্ত্রী সুজাতা খাঁ ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা।

রবিবার সৌমিত্র খাঁ এর স্ত্রী সুজাতা খাঁ এর নেতৃত্বে বড়জোড়ায় মিছিল করলো বিজেপি। এদিন স্থানীয় ব্যাঙ্ক মোড় থেকে মিছিল শুরু হয়। এলাকার অসংখ্য বিজেপি কর্মী-সমর্থক এদিনের মিছিলে অংশ নেন। এদিনের মিছিলে বিজেপি প্রার্থী সৌমিত্র খাঁকে ‘বিপুল ভোটে’ জয়ী করার আহ্বান জানানো হয়।

পরে ‘বিদায়ী’ সাংসদ ও এবারে বিষ্ণুপুর (তফঃ) কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী সৌমিত্র খাঁ এর স্ত্রী সুজাতা খাঁ ‘ভারতবর্ষের ইতিহাসে লজ্জা’ দাবি করে বলেন, তার নিজের জেলায় একজন প্রার্থী ঢুকতে পারছেননা। কিন্তু তাকে ঢুকতে দেওয়া না হলেও তার অজস্র কর্মী, সমর্থক সর্বোপরি পরিবারের সবাই রয়েছেন।

প্রার্থী জেলায় ঢোকার সুযোগ না পেলেও তারা সবাই মিলে তাকে জিতিয়ে আনবেন বলে দৃঢ় প্রত্যয়ী সুজাতা খাঁ বলেন, এবিষয়ে বিষ্ণুপুরের মানুষের উপর পূর্ণ আস্থা আছে। যেখানে একজন সাংসদের পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে সেখানে সাধারণ মানুষ কতোটা নিরাপদ প্রশ্ন তুলে তিনি আরো বলেন, আমাদের দলের কর্মী-সমর্থকদের মারধোরের পাশাপাশি দেওয়ার লিখন মুছে ফেলা হচ্ছে। এই জায়গায় দাড়িয়ে রাজ্য সরকার সাধারণ মানুষকে কিভাবে নিরাপত্তা দেবে।

নাম না করে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘গদ্দার’ বলে দাবী করে সুজাতা খাঁ বলেন, উনি একবার কংগ্রেসের ডালে দোল খান একবার বিজেপির ডালে। এই মুহূর্তে তারা সকলে ‘তৃণমূলকে ঘৃণা’ করেন বলেও স্পষ্টতই দাবী করেন ‘বিদায়ী’ সাংসদের স্ত্রী। একই সঙ্গে দলের প্রার্থী সৌমিত্র খাঁ প্রচারে থাকার সুযোগ না পেলেও মানুষের মনে তিনি আছেন। তাই ‘একশো নয় এক হাজার শতাংশ’ নিশ্চিত বিষ্ণুপুর কেন্দ্রে সৌমিত্র খাঁ জিতবেন বলেও সুজাতা খাঁ দাবী করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.