সারাদশে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মন্দির ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। ২২৮ কোটি ৬৯ লাখ টাকা ব্যয়ে সারা দেশের ১ হাজার ৮১২টি পুরাতন মন্দির সংস্কারের প্রকল্প নেওয়া হয়েছে।

ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এই প্রকল্পের আওতায় হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের সক্ষমতা বৃদ্ধির মাধ্যমে প্রায় ১ কোটি ২৩ লাখ সনাতন ধর্মাবলম্বী উপকৃত হবে।

প্রকল্পে’র নামকরণ করা হয়েছে ‘সমগ্র দেশে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মন্দির ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান উন্নয়ন ও সংস্কার’। এর আওতায় দুটি পিকআপ, দুটি জিপ, কম্পিউটার, অফিস সরঞ্জাম ও আসবাবপত্র কেনা হবে।

জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় মঙ্গলবার (৫ মার্চ) প্রকল্পটি অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হবে।

পরিকল্পনা কমিশনের ভারপ্রাপ্ত সদস্য (সচিব) আবুল কালাম আজাদ এ প্রসঙ্গে বলেন, সারা দেশের কিছু কিছু পুরাতন মন্দির আছে সেইগুলো আমরা এই প্রকল্পের আওতায় সংস্কার করবো। প্রকল্পের মোট ব্যয় ২২৮ কোটি টাকা। তবে এই প্রকল্পের আওতায় সকল পুরাতন মন্দির সংস্কার করা সম্ভব হবে না। এক্ষেত্রে কিছু কিছু পুরাতন মন্দির সংস্কার করা সম্ভব হবে।

ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, ২০১১ সালের আদমশুমারির তথ্যের আলোকে দেশে হিন্দু ধর্মাবলম্বীর সংখ্যা ১ কোটি ২৩ লাখ। এর আগে দেশের হিন্দু জনসাধারণের ধর্মীয় কল্যাণ সাধন ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের পবিত্রতা রক্ষার্থে মঠ, মন্দির, আশ্রম, তীর্থস্থান, হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্ট, শ্মশানের উন্নয়নে কোনো প্রকল্প গ্রহণ করা হয়নি। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময়ে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী সমগ্র দেশে বিভিন্ন স্থানে অনেকগুলো মন্দির ধ্বংস করে। চলতি সময় থেকে ২০২১ সালের অক্টোবর মেয়াদে পুরাতন মন্দিরগুলো সংস্কার করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.