লোকসভার সাধারণ নির্বাচনের আগেই রামনবমীকে কেন্দ্র করে জোর লড়াই দেখা দিয়েছে বিজেপি ও তৃণমূলের মধ্যে। পুরুলিয়া জেলা ছাড়াও জেলা সদরে এর প্রভাব লক্ষ্য করা গিয়েছে।প্রমাদ গুনছে জনসাধারণ। পুরুলিয়া স্টেশন চত্বর, বাসস্ট্যান্ড সহ শহরের গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন এলাকা প্রমাণ আকারের হোর্ডিং আর ব্যানারে ছয়লাপ। রাম ও হনুমানের ছবি ছাড়াও তলায় রয়েছে বিভিন্ন নেতাদের ছবি। রাম নবমী উপলক্ষ্যে সাধারণ মানুষকে সামিল হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন এঁরা সবাই। রাজনৈতিক ভেদাভেদ ভুলে ১৩ এপ্রিল বজরং দল ও বিশ্ব হিন্দু পরিষদ (কার্যত বিজেপি)এর এবং পরের দিন ১৪ এপ্রিল রাম নবমী উদযাপন কমিটি (তৃণমূলে)র এই হোর্ডিং ব্যানার ও পোস্টারগুলিতে পুরোপুরি রাজনৈতিক লড়াইয়ের বাতাবরণ তৈরি করেছে বলে পুরুলিয়াবাসীর মত।

যুব তৃণমূলের পুরুলিয়া শহর সভাপতি এবং রাম নবমী কমিটির আহ্বায়ক গৌরব সিং বলেন, ‘রাম নামকে কেন্দ্র করে বিভেদের রাজনীতি করতে চাইছে বিজেপি। তার বিরুদ্ধেই আমাদের রাম নবমী উপলক্ষ্যে শোভাযাত্রার আয়োজন।’ 

এই প্রসঙ্গে বিজেপি নেতা তথা ১৩ এপ্রিল শোভা যাত্রার অন্যতম আহ্বায়ক সুরজ শর্মা বলেন, ‘ওটা তৃণমূলের অপপ্রচার। আমাদের শোভাযাত্রায় কোনও রাজনৈতিক কর্মসূচি নয়। সব মানুষের আবেগ সম্মিলিত শোভাযাত্রা মাত্র।’

হোক না ধর্মীয় কর্মসূচি। ১৩ এবং ১৪ তারিখ পুরুলিয়া জেলা জুড়ে ভোট বাজারের সরগরমে উত্তেজনায় ফুটবে। ভোট পর্বের মধ্যেই দুই দিনের কর্মসূচি পুলিশের কাছে যেন গোদের উপর বিষফোঁড়া। তাই, কোমর বেঁধে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে প্রস্তুত হচ্ছে পুলিশও।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.