লোকসভা ভোটে এরাজ্যে পদ্ম ফোঁটাতে মরিয়া গেরুয়া শিবির। গত লোকসভা নির্বাচনের আগে এরাজ্যে বিজেপির ঝুলিতে মাত্র ৩ শতাংশ ভোট ছিল। সেই ৩ শতাংশ ভোট বেড়ে ২০১৪ সালে বিজেপি রাজ্যের ১৭ শতাংশ ভোটে থাবা বসিয়েছিল। দখল করে নিয়েছিল দুটি আসন।

তবে এবার আর এক-দুটো নিয়ে শান্ত থাকছে না বিজেপি, নিউজ চ্যানেল গুলোর সমীক্ষায় এরাজ্যে কমপক্ষে ৮ টি আসন পেতে চলেছে বিজেপি। কিন্তু বিজেপি তাতেও খুশি নয়। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ এরাজ্যে মোট ২৩ টি আসনের লক্ষ্য রেখেছে।

আরেকদিকে বিজেপির মহাসচিব এবং রাজ্যের পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয়বর্গীয় রামনবমীর শোভা যাত্রায় মানুষের ঢল দেখে কমপক্ষে ৩০ টি আসন পাওয়ার কথা বলেছেন। ২৩ হোক আর ৩০ বিজেপি এরাজ্য থেকে তৃণমূলকে নির্মূল করতে একেবারে কোমর বেঁধে নেমেছে।

আর সেই লক্ষ্যেই আগামী ১৮ এ এপ্রিল দ্বিতীয় দফার ভোটের পর দেশের জনপ্রিয় প্রধানমন্ত্রীকে সামনে রেখে প্রচারে ঝড় তুলতে চাইছে বিজেপি। সেই মতে তৃতীয় দফা ভোটের আগে রাজ্যে একটি সভা করবেন তিনি।

২৩শে এপ্রিল হতে চলেছে তৃতীয় দফার ভোট। আর আগামী ২০শে এপ্রিল এরাজ্যে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ২০শে এপ্রিল বুনিয়াদপুরে সভা করবেন তিনি। তৃতীয় দফার ভোটের প্রচার শেষ হবে ২১শে এপ্রিল। আর তারপর আবার চতুর্থ দফার ভোটের জন্য প্রস্তুতি নেবে গেরুয়া শিবির।

চতুর্থ দফার ভোট ২৯শে এপ্রিল। আর তাঁর আগে বাবুল সুপ্রিয় এবং আলুওয়ালিয়ার সমর্থনে ২৩শে এপ্রিল দুর্গাপুরে প্রচারে ঝড় তুলবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আবার তারপরের দিনেই এরাজ্যে আবার আসবেন তিনি। ২৪শে এপ্রিল অনুব্রতর দুর্গে হানা দেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

২৪শে এপ্রিল দুটি সভা করবেন প্রধানমন্ত্রী। প্রথম সভা হবে বোলপুরে, দ্বিতীয় সভা কৃষ্ণনগরে। নরেন্দ্র মোদীর এই ম্যারাথন সভা যে তৃণমূলের দুর্গে আঘাত হানার জন্য যথেষ্ট, সেটা বলাই বাহুল্য।


Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.