৯০ কোটি ভোটার, ৫৪৩ টি লোকসভা আসন , ১০ লক্ষ পোলিং স্টেশন, 10 মিলিয়ন নির্বাচনী কর্মকর্তা, ৪৬৪ টি রাজনৈতিক দল এবং এক মাসব্যাপী নির্বাচনী প্রচার, পৃথিবীর বৃহত্তম গণতন্ত্রের একটি মহৎ উৎসব তার শেষের দিকে।

ভারতের প্রতিটি কোনায় কোনায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ৩০০০ এর অধিক জনসভা ও পথসভা পরিচালনা করে দেশের প্রত্যন্ত ভাগে মানুষের কাছে পৌঁছানোর চেষ্টা করেছে ।ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী নিজে প্রায় ২০০
টির উপরে জনসভায় ভাগ নিয়েছেন । কিন্তু সর্বশেষে মানুষের মনে প্রশ্ন একটাই “ মোদী কি আবার ক্ষমতায় ফিরে আসবেন “ এবং “ বিজেপি কি একাই সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে “।

তাই অপেক্ষা কিসের দেখা যাক এই ইন্টার‌্যাক্টিভ মানচিত্রের সমীকরণের উপর :

এখনও পর্যন্ত ৭ দফা তথা শেষ দফার নির্বাচন বাকি কিন্তু নির্বাচন বিশ্লেষক ও রাজনৈতিক পন্ডিতদের মধ্যে মতবিরোধ ও বিভ্রান্তির শেষ নেই । ঐ গোলকধাঁধার মধ্যে তাদের মনেও প্রশ্ন একটাই “ মোদী লহর কি আজও সমানভাবে বিদ্যমান । বিজেপি কি একাই নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে এবং মোদী কি আবার ক্ষমতায় ফিরে আসবে ।”

দেশের বুদ্ধিমান জনতা নিজেদের মত করে সব পন্ডিতদের নির্বাচনের ফলাফল সম্পর্কে ধাঁধা সৃষ্টি করে রেখেছে । শেষের দশকে বিজেপির দিকে জনসমর্থন বৃদ্ধি পেয়েছে ।২০০৯ ও২০১৪ এর মধ্যে তুলনা করলে দেখব যে বিজেপির ভোট সংখ্যা প্রায় ২০৯ টি লোকসভা কেন্দ্রে ১০% বৃদ্ধি পেয়েছে এবং ভারতের নির্বাচনের ইতিহাসে তা যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ ।হিন্দীবলয় সহ পশ্চিমবাংলা মিলিয়ে ৬ টি রাজ্যের ঐ ২০৯ টি আসন বিন্যস্ত ও এর মধ্যে ১৫৮ টি আসন যার মধ্যে ৯৫ টি আসন উত্তরপ্রদেশ , বাংলা , মহারাষ্ট্র ও রাজস্হানে রয়েছে যেখানে বিজেপির ভোট শতাংশ ১৫% বেড়েছে ।

নির্বাচনের ফলের ভবিষ্যবাণী করার আগে পন্ডিত ও বিশ্লেষকদের উচিত নিজেদের কে নিম্নলিখিত প্রশ্ন গুলি করা ।

  1. ভারতের প্রান্তে প্রান্তে কি এখনও গোপনে গোপনে মানুষের মনে মোদীলহর বিরাজমান যা নিঃশব্দ বিপ্লব ঘটিয়ে বিজেপি কে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা দিতে সম্ভবপর করবে এবং বিজেপির ভোটের সংখ্যাও বৃদ্ধি করবে ?
  2. নাকি হিন্দী বলয়ে বিজেপির ভোট সংখ্যা আগের থেকে কমে যাবে ?
  3. বাংলা ও ওড়িষ্যা কি ব্যাপকভাবে বিজেপিকে আসন দেবে ?

ঐ সব প্রশ্নের উত্তর নির্বাচনের ফলাফলের উপর ব্যাপক প্রভাব ফেলবে ।

যখন নির্বাচনী ফলাফল পন্ডিত ও বিশ্লেষকর কাছে বোধগম্য হওয়ার থেকে বহু দূরে তখন পাঠকেরা নিজেরাই নিজেদের মত করে উপরের মানচিত্রে রাজ্য ও ভোট ব্যবধানের শতাংশ অনুযায়ী নিজেদের মত করে পরখ করে আসন সংখ্যা ও আসন্ন নির্বাচনের ফলাফলের বিশ্লেষণ পেতে পারেন এবং তা বন্ধুবান্ধবের সাথে স্যোশাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারেন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.