বেলপাহাড়ির পর নয়াগ্রামে বিজেপিতে যোগ দিলেন কয়েকশো তৃণমূল ও সিপিএম কর্মী সমর্থক। লোকসভা নির্বাচনের প্রচারের শুরুতেই নয়াগ্রাম বিধানসভা এলাকা থেকে আঠারোশো তৃণমূল ও দুশো সি পি এম কর্মী সমর্থক বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন বলে দাবি করলেন বিজেপির ঝাড়গ্রাম জেলা নেতৃত্ব। মঙ্গলবার ঝাড়গ্রাম লোকসভা কেন্দ্রের দলীয় প্রার্থী কুনার হেমরমের সমর্থনে নয়াগ্রাম বিধানসভা এলাকায় প্রচারে যান জেলা সভাপতি সুখময় সৎপথি ও দলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক অবনী ঘোষ। এদিন নয়াগ্রামের খড়িকামাথানী এলাকার গোখুরপালে নির্বাচনী সভার আয়োজন করা হয়। সেখানে উপস্থিত হন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সভা শুরুর কিছুক্ষণ পরে উঁচু কমলাপুর, বড়ডাঙ্গা ও ছোট ঝরিয়া বুথ গুলি থেকে তৃণমূল ও সিপিএমের স্থানীয় কর্মী-সমর্থকরা সেখানে মিছিল করে এসে উপস্থিত হন। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ও রাজ্য সাধারণ সম্পাদক অবনী ঘোষ তাদের হাতে বিজেপির দলীয় পতাকা তুলে দেন। তৃণমূলের বড়ডাঙ্গা বুথের সভাপতি পবন বাগ এবং উঁচু কমলাপুর বুথের সভাপতি বলরাম কুইলা বলেন, গরিবের উন্নয়নের টাকা খেয়ে শেষ করে দিচ্ছে তৃণমূল নেতারা। গরিবদের উন্নয়নের বদলে উন্নয়ন হচ্ছে নেতাদের। দুর্নীতিতে পুরো দলটি ডুবে গেছে। অন্যদিকে গরিব মানুষের প্রয়োজন বুঝে কেন্দ্র সরকার উজালার মত অনেক প্রকল্প নিয়েছে। তাই আমরা সবাই ক্ষোভে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলাম।

বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, গত সাত বছরে জঙ্গলমহলে গরিবদের উন্নয়নের থেকে নেতাদের উন্নয়ন হয়েছে অনেক বেশি। যার ফলে মানুষ তৃণমূল থেকে সরে আসছে। গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে জঙ্গল মহলের মানুষ জবাব দিয়েছেন। এবার লোকসভা নির্বাচনের ভোট বাক্সেও তৃণমূলকে উপযুক্ত জবাব দেবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.