প্রার্থী ঘোষণায় কিছুটা দেরি হলেও নাম ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গেই প্রচারে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন ঝাড়গ্রামের বিজেপি প্রার্থী কুনার হেমরম। রিক্সা চালক, টোটো চালক থেকে সমস্ত পথচলতি মানুষের কাছে তাঁর আবেদন বিজেপিকে একবার সুযোগ দেওয়ার। আইআইটির ইঞ্জিনিয়ার কুনারবাবু রাজনীতিতে নতুন হলেও আদিবাসী সমাজে একটি পরিচিত নাম।

আদিবাসীদের অলচিকি লিপির জন্য পাঁচটি  সফটওয়্যারের আবিষ্কারক বিজেপি প্রার্থীর আদি বাড়ি জামবনি ব্লকের গগনাশুলিতে হলেও বর্তমানে তিনি ঝাড়গ্রাম শহরের কন্যাডোবাতে থাকেন।তৃণমূলের শিক্ষিকা প্রার্থী বিরবাহা সরেনের সঙ্গে এবার বিজেপি প্রার্থী হিসেবে তাঁরই লড়াই হবে বলে রাজনৈতিক মহল মনে করছেl গতবার লোকসভা ভোটে ঝাড়গ্রাম কেন্দ্রে বিজেপি তৃতীয় স্থানে ছিল। কিন্তু গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসে ঝাড়গ্রাম মহকুমায় সাতাশটি গ্রাম পঞ্চায়েত ও দুটি পঞ্চায়েত সমিতির দখল নেয় বিজেপ।  তিনটি  জেলা পরিষদ আসনেও বিজেপি প্রার্থীরা জয়ী হনl বাকি ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত আসন গুলিতে প্রায় সমানে সমানে লড়াই দেয় পদ্ম শিবিরl সেই নিরিখে শাসক দলের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে উঠে এসেছে বিজেপি।

আদিবাসী সমাজের নেতা রবিন টুডুর স্ত্রী বিরবাহা সরেনকে তৃণমূলের প্রার্থী করায় আদিবাসী সমাজে যে বিতর্ক ও টানাটানি শুরু হয়েছে সে রকম কোনো সমস্যা নেই বিজেপি প্রার্থী কুনার হেমব্রমেরl আদিবাসীদের পারগানা মহলের নেতা রবিন টুডুর স্ত্রী বিরবাহা সরাসরি রাজনীতিতে নেমে পড়ায় গোলমাল শুরু হয়েছে আদিবাসীদের মধ্য। দু দফায় অনুষ্ঠিত ছাতিনাশোল ও বেতকুন্দরির সভা থেকে কোনোরকম সমাধান সূত্রে পৌঁছাতে পারেনি পারগানা মহল। পারগানা মহলের  একাংশ চাইছেন রাজনীতির বাইরে থাকা সমাজ সংগঠনের মর্যাদা রাখতে বিরবাহা  সরেন তৃণমূলের প্রার্থী পদ থেকে সরে দাঁড়ান।

তৃণমূল প্রার্থীকে নিয়ে আদিবাসী সমাজের এই টানাহেঁচড়ার মাঝখানে সমাজের একটি অংশ সরাসরি কুনার হেমরমের পাশে দাঁড়িয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁরা বিজেপি প্রার্থীর পক্ষে প্রচার শুরু করেছেন। আইআইটির ইঞ্জিনিয়ার কুনার হেমরম দলের এসটি মোর্চার সভাপতি হিসেবে যেমন পরিচিত তেমনি অলচিকি লিপির সফটওয়্যার আবিষ্কারক হিসেবে আদিবাসী সমাজে সমধিক পরিচিত। তাঁর মোবাইল ও কম্পিউটারের জন্য অলচিকি লিপির সফটওয়্যার আবিষ্কারের অবদানে সমগ্র আদিবাসী সমাজ উপকৃতl শিক্ষা ক্ষেত্রে তাঁর এই যুগান্তকারী অবদানকে পুঁজি করে এবং আগামী দিনে স্বাস্থ্য ও শিক্ষার উপর জোর দেওয়ার লক্ষ্য নিয়ে রাস্তায় নেমে ভোট প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার কুমার হেমরম। জয়ের লক্ষ্যে ভোটের আবেদন নিয়ে ছুটছেন গড়বেতা শালবনী বান্দোয়ান লালগড় নয়াগ্রাম গোপীবল্লভপুর। দেওয়াল লিখনের পাশাপাশি সারছেন ছোট-বড় কর্মীসভা। সর্বত্র ভালো সাড়া পাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন কুনারবাবু। বিজেপির ঝাড়গ্রাম জেলা সভাপতি সুখময় সৎপথি জানিয়েছেন ব্লকে ব্লকে কর্মী সভা চলছে। প্রার্থীর সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হচ্ছে কর্মীদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.