মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নয় পশ্চিমবঙ্গের ৫৪ শতাংশ মানুষ নরেন্দ্র মোদীকেই আবার দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান। হ্যাঁ সমীক্ষার রিপোর্ট অন্তত তাই বলছে।
অ্যাক্সিস মাই ইন্ডিয়া ফর টুডেজ পলিটিক্যাল স্টক এক্সচেঞ্জ( পিএসই) সমীক্ষা রিপোর্টে এই তথ্য উঠে এসেছে।পশ্চিমবঙ্গের ৫৪ শতাংশ ভোটার মোদীর দিকেই ঝুঁকছেন। মার্চের ১৩ থেকে ২০ তারিখের মধ্যে এই সমীক্ষা চালানো হয়।

সমীক্ষায় উঠে এসেছে পশ্চিমবঙ্গের ৪২ শতাংশ মানুষ বলেছে বেকারত্ব তাদের কাছে অনেক বড় ইস্যু। এই সমীক্ষা অনুযায়ী সন্ত্রাসবাদের তুলনায় বেকারত্ব ও কৃষি সমস্যা অনেক বড় ইস্যু সাধারণ ভোটারদের কাছে।
পশ্চিমবাংলায় ৪২ শতাংশ মানুষ বেকারত্বকে ভোটের অন্যতম ইস্যু বলে মনে করছেন। ৯ শতাংশ মানুষ মূল্য বৃদ্ধি এবং ১৫ শতাংশ মানুষ কৃষি সংক্রান্ত সমস্যা এবং ৬ শতাংশ মানুষ সন্ত্রাসবাদকে ইস্যু করছেন ভোটের।

অন্যদিকে রাজ্যের ৭০ শতাংশ মানুষ পুলওয়ামা হামলার জবাব দেওয়ার ক্ষেত্রে মোদী সরকারের পদক্ষেপের সঙ্গে সন্তোষ প্রকাশ করেছে।

৪৮ শতাংশ মানুষ মনে করে কংগ্রেসের তুলনায় বিজেপি সরকার অনেক ভালো এবং তাদের হাতেই ভারতের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত থাকবে। শেষ পাঁচ মাসে এরাজ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জনপ্রিয়তা বেড়েছে ৫৪ শতাংশ। এই ভোটাররা পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান মোদীকেই।সেখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দ্বিতীয় পছন্দের প্রধানমন্ত্রী। যাকে ২৩ শতাংশ ভোটার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান। ১২ শতাংশ ভোটার রাহুল গান্ধীকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান।

সমীক্ষা অনুযায়ী এরাজ্যের ৫৬ শতাংশ মানুষ মোদি সরকারের কাজে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। ২৫ শতাংশ মানুষ মোদী সরকারের কাজে সন্তোষ প্রকাশ করেননি ।অর্থাৎ সব মিলিয়ে নরেন্দ্র মোদীই প্রধানমন্ত্রী পদে সবচেয়ে বড় দাবিদার।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.