সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের আগে ক্রমশ ছড়াচ্ছে উত্তাপ। রাজ্যের ৪২ কেন্দ্রের মধ্যে বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে বারাকপুর লোকসভা কেন্দ্র। কারণ ওই কেন্দ্রে বিজেপির প্রার্থী তৃণমূল কংগ্রেসের দুর্দিনের সৈনিক অর্জুন সিং। জাতীয় স্তরেও আলোচনা চলছে বারাকপুর নিয়ে।

দল বদলে করার পরে পুরনো দলের বিরুদ্ধে একাধিকবার ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন বারাকপুরের দাপুটে নেতা। এবার আরও একধাপ এগিয়ে রাজ্যের শাসকদলের উদ্দেশ্যে কড়া হুমকি দিলেন বারাকপুরের বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিং। প্রশাসনের বিরুদ্ধে তাঁর অভিযোগ, “প্রশাসন শুধু ওদের পক্ষেই কাজ করছে। আমাদের অভিযোগের বিষয়ে কোন গুরুত্ব দিচ্ছে না।”

অভিযগের সূত্রপাত লোকসভা নির্বাচনের দেওয়াল লিখনকে কেন্দ্র করে। বারাকপুরের বিভিন্ন জায়গায় বিজেপির দেওয়াল লিখন মুছে দেওয়া হচ্ছে এবং তা তৃণমূল কংগ্রেসের লোকেরা করছে। এমনই অভিযোগ করেছে বারাকপুরের বিজেপি নেতৃত্ব। প্রশাসনের কাছে এই বিষয়ে বারবার অভিযোগ জানিয়েও কোনও কাজ হয়নি বলে অভিযোগ করেছে পদ্ম শিবির।

দেওয়াল লিখন নিয়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে এবং প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষভ উগরে দিয়েছেন অর্জুন সিং। শুক্রবার দেওয়াল লিখন নিয়ে প্রশাসনিক কর্তাদের তোপ দেগে বারাকপুরের বিজেপি প্রার্থী হুশিয়ারি দেন, “আমি যদি মনে করি তৃণমূল কংগ্রেস কে একটাও দেওয়াল লিখতে দেব না। আমি দ্বায়িত্ব নিয়ে বলছি একথা।” একই সঙ্গে তিনি আরও বলেন, “আমি অশান্তি চাই না। প্রশাসন শুধু ওদের পক্ষেই কাজ করছে। আমাদের অভিযোগের বিষয়ে কোন গুরুত্ব দিচ্ছে না। প্রশাসনকে নিরপেক্ষ ভূমিকা নিয়ে কাজ করতে হবে।”

গত মাসে দিল্লিতে বিজেপির সদর দফতরে গিয়ে গেরুয়া নামাবলী গায়ে চাপিয়ে নেন অর্জুন সিং। নতুন দলে যোগ দিয়ে মুকুল রায়কে কৃষ্ণ বলে সম্বোধন করেছিলেন। অর্জুন এবং কৃষ্ণের যুগলবন্দিতে নতুন মহাভারত রচনার ইঙ্গিতও দিয়েছিলেন তিনি। এদিনও সেই একই সুর শোনা গিয়েছে অর্জুনের গলায়। তিনি বলেছেন, “অর্জুন শ্রীকৃষ্ণ যেখানে থাকবে সেখানে মহাভারত হবেই। মহাভারত আসলে সত্য এবং অসত্যের লড়াই। তবে মহাভারত বলতে আজকের সমাজ ব্যবস্থায় গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে নির্বাচন প্রক্রিয়াকেই বুঝি আমরা। আর এই নির্বাচন প্রক্রিয়া আসলে আজকের যুগে মহাভারত। মহাভারতে অর্জুনের জয় নিশ্চিত।” বারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেস তিন নম্বরে থাকবে বলেও দাবি করেছেন অর্জুন।

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে অর্জুন সিং ভোট প্রার্থী হলেও মুকুল রায় অর্জুন সিংয়ের সারথী বলে প্রচারিত রয়েছে বিজেপি কর্মীদের মধ্যে। শুক্রবার দুপুরে অর্জুন বাবু বারাকপুর প্রশাসনিক ভবনে এসে মহকুমা শাসক আবুল কালাম আজাদ ইসলামের সঙ্গে দেখা করেন।


Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.