২৪ ঘন্টা পরেই রাজ্যে দ্বিতীয় দফার নির্বাচন। প্রথম দফা থেকে শিক্ষা নিয়ে কার্যত অনেক বেশি সতর্ক এবার কমিশন। সমস্ত স্পর্শকাতর বুথে যাতে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা যায় সেজন্যে আরও বাড়তি বাহিনী বাংলায় নিয়ে আসছে কমিশন। ইতিমধ্যে জলপাইগুড়ি এবং রায়গঞ্জের একাধিক জায়গায় কেন্দ্রীয় বাহিনী রুট মার্চ শুরু করেছে। কিন্তু তাতেও কোথায় ফাঁক রাখতে চাইছে না নির্বাচন কমিশন। ভোটের ২৪ ঘন্টা আগে রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রে পৌঁছে গেলেন পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে।

আজ মঙ্গলবার সকালে রায়গঞ্জে পৌঁছে যান তিনি। সরজমিনে ভোট পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে সেখানে যান কমিশনের বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক। জানা গিয়েছে, সেখানে পুলিশ নিরাপত্তা, কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন সহ একাধিক বিষয়কে সামনে রেখে জেলার আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন। ভোটের ২৪ ঘন্টা সমস্ত আগে সমস্ত দিক খতিয়ে দেখেন তিনি। মনে করা হচ্ছে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে নিজে মাঠে ঘুরে ভোট দেখবেন।

আবার অন্য একটি সূত্র বলছে বাকি দুই যে লোকসভা কেন্দ্রে আগামী বৃহস্পতিবার ভোটগ্রহণ রয়েছে সেখানে যেতে পারেন বিবেক দুবে। অর্থাৎ দার্জিলিং এবং জলপাইগুড়ি লোকসভা আসনে ভোট ঘুরে দেখতে পারেন তিনি। এমনকি জেলার আধিকারিকদের সঙ্গেও বৈঠক করার সম্ভাবনা রয়েছে তাঁর।

প্রসঙ্গত, প্রথম দফা নির্বাচন অর্থাৎ কোচবিহার এবং আলিপুরদুয়ার লোকসভা আসনে ভোট ছিল। বিশেষ করে কোচবিহার লোকসভা আসনে ভোটগ্রহণ চলাকালীন শাসকদলের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগে সরব হয়েছে বিরোধী। বুথ জ্যাম থেকে এজেন্টকে বসতে না দেওয়া একাধিক অভিযোগ বিজেপি সহ সমস্ত বিরোধী রাজনৈতিকদলের। কেন্দ্রীয় বাহিনীর মোতায়েন নিয়েও প্রশ্ন বিরোধীদের। প্রশ্নের মুখে এই বিবেক দুবের ভূমিকাও। ফলে এবার সমস্ত দিক থেকে সতর্ক নির্বাচন কমিশন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.