সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের নির্ঘন্ট ঘোষণা হয়ে গিয়েছে গত মার্চে৷ রাজ্য সহ দেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলি তাদের নির্বাচনী প্রচার শুরু করে দিয়েছে৷ অরাজনৈতিক হলেও নিজেদের আদর্শ মেনে হিন্দুত্বের সমর্থক সরকারকে ভোট দেওয়ার আবেদন জানাচ্ছে বাংলার বিশ্বহিন্দু পরিষদ৷ মোদী সরকার-কে ভোট দিয়ে পুনঃনির্বাচিত করার জন্য বাংলার হিন্দু প্রধান গ্রামগুলিতে ‘ডোর টু ডোর’ প্রচার করছে এই হিন্দু সংগঠনটি৷

রামায়নে কাঠবিড়ালির উল্লেখ করে একটি গল্প প্রচলিত রয়েছে৷ কথিত আছে সীতা উদ্ধারে লঙ্কায় পৌঁছানোর জন্য রাম এবং তার বাঁদর সেনা সমুদ্রের উপর সেতুবাঁধার কাজ করছিলেন ঠিক সেই সময় একটি ছোট কাঠবেড়ালি তার সাধ্য মতো ছোট ছোট কাঠ ও পাথর মুখে করে নিয়ে গিয়ে ফেলছিল সমুদ্রে৷ ক্ষুদ্র সামর্থ্য থেকেও রামের সেতুবাঁধার কাজে সাহায্যের করার চেষ্টা করছিল কাঠবিড়ালিটি৷ মোদী সরকারের পুনঃনির্বাচনে বিশ্বহিন্দু পরিষদও ঠিক একই রকমভাবে তাদের যোগদান দেওয়া জন্য প্রস্তুত৷ এমনটাই জানালেন বিশ্বহিন্দু পরিষদের পূর্বাঞ্চলের প্রধান সচিন্দ্রনাথ সিনহা৷

সচিন্দ্রনাথ বলেন, ‘‘আমরা দেখতে পাচ্ছি বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা কীভাবে নিজেদের দলের পতাকা ছেড়ে ইসলামের পতাকা নিয়ে নমিনেশন ফাইল করতে যাচ্ছেন৷ দেশের মধ্যে ইসলামি এবং খ্রীস্টানি শক্তি নিজেদের মতো করে মোদী সরকার-কে উৎখাতের চেষ্টা করছে৷ কারণ অবশ্যই এই সরকার হিন্দুদের কথা ভাবে৷ তাই বিশ্বহিন্দু পরিষদের পক্ষ থেকে রাজনৈতিকভাবে না হলেও নিজেদের সমর্থক এবং সাধারণ হিন্দুদের কাছে আমরা আবেদন রাখছি তারা এমন দল-কে ভোট দিন যারা হিন্দুদের কথা ভাবে৷’’

বিজেপি-কে ভোট দেওয়ার জন্য আপনার সাধারণ মানুষের কাছে কী ভাবে প্রচার করছেন? এই প্রশ্নের উত্তরে সচিন্দ্রনাথ বক্তব্য, আমরা কোন রাজনৈতিক দল বা সংগঠন নই যে কোন দলের হয়ে সরাসরি প্রচারে অংশ নেবো৷ কারা শত্রু, মিত্র কারা সেটা আমরা সাধারণ হিন্দুদের কাছে তুলে ধরে তাদের সচতেন করি৷ গত একমাস ধরেই এই কাজ আমরা করছি৷

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.