দেশের করোনা সংক্রমণের নিম্নমুখী গ্রাফ অব্যাহত, দৈনিক আক্রান্ত নামল ১ লক্ষ ৬৫ হাজারে

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ভারত। একটা সময় যেখানে দৈনিক চার লক্ষের কাছাকাছি মানুষ এই মারণ ভাইরাসের কবলে পড়ছিলেন, সেখানে গত কয়েকদিন লাগাতার এই সংখ্যাটা ঘোরাফেরা করছে ২ লক্ষের নিচে। রবিবার সকালে তা নেমে এসেছে ১ লক্ষ ৬৫ হাজারে। একইভাবে কমছে মৃত্যুর সংখ্যাও। অন্যদিকে এই মুহূর্তে দেশের সুস্থতার হার ৯১.২৫ শতাংশ। আর পজিটিভিট রেট নেমে এসেছে ৯.২৫ শতাংশে। যা সার্বিকভাবে আশা দেখাচ্ছে স্বাস্থ্যমন্ত্রককে।

রবিবার সকালে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) দেওয়া পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১ লক্ষ ৬৫ হাজার ৫৫৩ জন করোনা (Coronavirus) আক্রান্ত হয়েছেন। এই নিয়ে টানা চারদিন ২ লক্ষের অনেক নিচে থামল দৈনিক সংক্রমণ। আপাতত দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৭৮ লক্ষ ৯৪ হাজার ৮০০ জন। স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, আপাতত মৃতের সংখ্যা ৩ লক্ষ ২৫ হাজার ৯৭২ জন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৪৬০ জনের।


তবে স্বাস্থ্যমন্ত্রককে বড়সড় স্বস্তি দিচ্ছে লাগাতার কমতে থাকা অ্যাকটিভ কেস। এই মুহূর্তে দেশে অ্যাকটিভ কেস ২১ লক্ষ ১৪ হাজার ৫০৮। স্রেফ গত ২৪ ঘন্টায় সক্রিয় বা চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা কমেছে ১ লক্ষ ১৪ হাজার ২১৬ জন। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় এক সময় যে স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ভেঙে পড়ার ইঙ্গিত মিলেছিল, তা আবার ঘুরে দাঁড়াচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ২ লক্ষ ৭৬ হাজার ৩০৭ জন, যা দৈনিক আক্রান্তের তুলনায় অনেকটাই বেশি। এই নিয়ে লাগাতার ১৭ দিন দৈনিক সুস্থতার সংখ্যা আক্রান্তের চেয়ে বেশি হল। করোনা রুখতে সবচেয়ে জরুরি হল টিকাকরণ। আর তাতেই এখন জোর দিচ্ছে সরকার। ইতিমধ্যেই ভারতে ২১ কোটি ২০ লক্ষ ৬৬ হাজার ৬১৬ জনকে টিকা দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.